Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

বকেয়া বেতন দাবি

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২০, ১২:০২ এএম

ধামরাইয়ে বাথুলি এলাকায় বকেয়া বেতন দাবিতে কারখানার সামনে বিক্ষোভসহ ঢাকা-আরিচা-মহাসড়কে গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করে রাখে সরকার ষ্টীল মিলস কারখানার শ্রমিকরা। এ সময় মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। পরে শিল্পাঞ্চল পুলিশের একটি দল পানিকামান ও মৃদু লাঠিচার্জ করে। পরে শ্রমিকরা মহাসড়ক ছেড়ে চলে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার।
শ্রমিকরা জানায়, চলতি মাসসহ ৫ মাসের বেতন এমনকি একটি ঈদ বোনাস পরিশোধ করেনি কারখানা কর্তৃপক্ষ। কর্তৃপক্ষকে বারবার তাগাদা দিলেও তারা বেতন না দিয়ে তালবাহানা শুরু করে। গত মাসের ১৩ তারিখে শ্রমিকরা আন্দোলন করলে ২৬ তারিখে বেতন পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তুকর্তৃপক্ষ তাও পরিশোধ করেননি।
পবিত্র ঈদ সামনে রেখে শনিবার বকেয়া বেতনের দাবি নিয়ে শ্রমিকরা সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে কারখানার সামনে অবস্থান নেয় ও বিক্ষোভ করে। এ সময় কর্তৃপক্ষের কোন আশ্বাস না পেয়ে শ্রমিকরা হতাশ হয়ে মহাসড়কে এসে অবস্থান নেয়। পরে সড়কে গাছের গুড়ি ফেলে প্রায় ১ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে এবং বিক্ষোভ করে। এ সময় মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। পরে শ্রমিকদের মহাসড়ক থেকে সড়াতে শিল্পাঞ্চলের পুলিশের একটি দল শ্রমিকদের ওপর মৃদু লাঠিচার্জ ও পানিকামান প্রয়োগ করে। পরে শ্রমিকরা মহাসড়ক ছেড়ে চলে যায়। এ সময়ও কারখানা কর্তৃপক্ষের কোন কর্মকর্তাকে দেখা যায়নি। এর পূর্বে প্রথমে কারখানার সামনে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করে। এ বিক্ষোভের ছবি সাংবাদিকরা তুলতে গেলে শিল্পাঞ্চল পুলিশ ইন্সপেক্টর মহিউদ্দিন একজন ফটো সাংবাদিকের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। পরে ওই সাংবাদিকের মোবাইল, ক্যামেরা থেকে ছবি ডিলিট করতে যায়। এ সময় সাংবাদিকরা এগিয়ে আসলে তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে।
কারখানার একাধিক শ্রমিক বলেন, আমরা গত ৫ মাস কোন বেতন পাইনি। ২০১৪ সালের ওভার টাইমের টাকা এবং গত বছরের ঈদ বোনাস এখনো পাইনি। এখন ভাড়া না দিতে পাড়ায় বাড়িওয়ালা আমাদের বাড়ি থেকে চলে যেতে বলছে। শ্রমিকরা আরো জানান, যারা বেতন দাবি করছে কারখানা কর্তৃপক্ষ জোর করে তাদের অনেককেই চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। এ বিষয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে বার বার মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ