Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

কেরানীগঞ্জে গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২০, ১২:০২ এএম

ঢাকার কেরানীগঞ্জে এক গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের পারগেন্ডারিয়ার সাতপাখি এলাকায়।

জানা যায়, সাতপাখি এলাকায় রাতে এক কিশোরী গার্মেন্টসকর্মী তার নিজ বাসায় গণধর্ষণের শিকার হয়। ধর্ষণের ঘটনা যাতে অন্য কাউকে না বলে এ জন্য তাকে তিন ধর্ষক বেদম মারধর করে ভয় দেখায়। ধর্ষকরা চলে যাবার পরে ওই গার্মেন্টসকর্মী ট্রিপল নাইনে ফোন দেয়। এতে রাতেই ইকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা মানিক, দুলাল ও শামীম নামে তিনজনকে আটক করে।

আটকদের মধ্যে মানিক পুলিশের সদস্য হওয়ায় ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শাহাদাত হোসেন তাদের পক্ষ নিয়ে ঘটনাটি মিথ্যা সাজিয়ে তাদেরকে ফাঁড়ি থেকে ছেড়ে দেয়ার চেষ্টা করে। এসময় খবর পেয়ে কয়েকশ’ এলাকাবাসী ইকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ি ঘেরাও করেন এবং বিক্ষোভ করেন। এ খবর পেয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ আটক ওই তিনজনকে ফাঁড়ি থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

ইকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. শাহাদাত হোসেন জানান, ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। মানিক নৌ পুলিশের একজন সদস্য। তার বাড়ি একই এলাকায়। স্থানীয় কিছু লোকজনের সাথে তার দ্ব›দ্ব রয়েছে। এলাকার লোকজন তাদের ফাঁসাতে এই ঘটনা সাজিয়েছেন। এই ঘটনায় আটক দুলাল ও শামীমকে ১৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করেছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণধর্ষণ

২৯ এপ্রিল, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ