Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

করোনা দুর্যোগের চ্যালেঞ্জ নিয়ে দায়িত্ব নিলেন ঢাকার দুই মেয়র

সায়ীদ আবদুল মালিক | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২০, ১২:০২ এএম

করোনা মহামারী ও ডেঙ্গু মোকাবেলাসহ বাসযোগ্য নগর গড়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত দুই মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। গতকাল শনিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছ। অন্যদিকে গত বুধবার ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোহাম্মদ জামাল মোস্তফার কাছ থেকে।
দুই সিটি কর্পোরেশনই অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দুই মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন করেছে। করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়ানোর জন্য এমন উদ্যোগ নেয়া হয়। এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোহাম্মদ জামাল মোস্তফা বলেন, করোনাবাইরাসের মহাদুর্যোগের কারণে একেবারে অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে গত বুধবার ডিএনসিসির নবনির্বাচিত মেয়র দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় বলেন, একই কারণে গতকাল শনিবার ডিএসসিসির নবনির্বাচিত মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠানও ছিল একেবারে জৌলুসহীন।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাপূর্ব ঢাকা এবং করোনাপরবর্তী ঢাকার জন্য একই পরিকল্পনা থাকলে চলবে না। পরিস্থিতি বিবেচনা করে নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ও পরিকল্পনা ঠিক করে নিতে হবে। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব প্ল্যানার্সের (বিআইপি) সাধারণ সম্পাদক ড. আদিল মুহাম্মদ খান বলেন, নবনির্বাচিত দুই মেয়রের কাছে প্রত্যাশা থাকবে তারা টেকসই ও স্থায়িত্বশীল নগর গঠনে বিশেষ গুরুত্ব দেবেন। তিনি বলেন, কেরোনা পূর্ববর্তী ও করোনা পরবর্তী পরিকল্পনা এক হবে না। বর্তমান সময়ে পরিচ্ছন্নতা ও পরিবেশ উন্নয়নের বিষয় মাথায় রেখে কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।
এ বিষয়ে স্থপতি ইকবাল হাবিব বলেন, নবনির্বাচিত মেয়রদের কাছে প্রত্যাশা করব তারা যেন নিজ নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেন। আর এই ক্ষমতা নেই, সেই ক্ষমতা নেই; এসব না বলে যেটুকু ক্ষমতা আছে, তা দিয়েই কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। কেননা, আনিসুল হক দেখিয়ে গেছেন ইচ্ছা থাকলে কাজ করতে অতিরিক্ত কোনো ক্ষমতার প্রয়োজন নেই। আর আমাদের মেয়রদের তো মন্ত্রীর পদমর্যাদা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, করোনার এ সময়ে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে নবনির্বাচিত মেয়রদের বিশেষ দৃষ্টি দিতে হবে। টেকসই ও স্থায়ী পরিবেশবান্ধব উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে হবে।
ইতিহাস-ঐতিহ্যের ঢাকা সিটি কর্পোরেশন বিভক্ত হয় ২০১১ সালের নভেম্বরে। দুই ভাগে বিভক্ত করে নামকরণ করা হয়, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল বিভক্ত সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ডিএনসিসিতে বিজয়ী হন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক ও ডিএসসিসিতে বিজয়ী হন একই দলের প্রার্থী মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। মেয়র খোকন দায়িত্ব গ্রহণ করেন ৬ মে এবং বোর্ডসভা করেন ১৬ মে। আর আনিসুল হক দায়িত্ব গ্রহণ করেন ৭ মে এবং প্রথম বোর্ডসভা করেন ১৩ মে।
ডিএসসিসি স্বাভাবিকভাবে চললেও ডিএনসিসিতে বিপত্তি ঘটেছে বারবার। এ সংস্থার প্রথম নির্বাচিত মেয়র আনিসুল হক ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর মারা যান। আনিসুল হকের অসুস্থতার সময়ে ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেন প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ ওসমান গনি। ২০১৮ সালের ২২ সেপ্টেম্বর তিনি মারা যান। এরপর ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেন আরেক প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ জামাল মোস্তফা। এরপর ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিএনসিসির উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই উপ-নির্বাচনে নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম। দ্বিতীয় মেয়াদে ডিএনসিসি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে সমর্থন পাওয়ায় মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করেন মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম। এরপর ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেন প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ জামাল মোস্তফা। #

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২৮ নভেম্বর, ২০২০
২৮ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন