Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী

হাইমচরে ২৫জনের নামের পাশে এক মেম্বারের নাম্বার!

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২০, ৯:৪২ এএম

চাঁদপুর জেলার হাইমচরে করোনায় কর্মহীন নিম্নআয়ের ২৫জনের নামের পাশে এক মেম্বারের মোবাইল নাম্বার বিতরণ রয়েছে। হতদরিদ্রদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত আর্থিক সহায়তায় তালিকায় একজন ইউপি সদস্যের এমন অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ প্রদান করা হবে জেনে আলগী দক্ষিণ ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বিল্লাল আখন তার নিজের মোবাইল নাম্বারটি বসিয়ে দিয়েছেন ২৫জন সুবিধাভোগীর নামের পাশে।

এ নিয়ে উপজেলায় রয়েছে আলোচনা সমালোচনার ঝড়। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউপি সদস্য এবং নেতাদের নাম্বার একাধিক সুবিধাভোগীর নামের পাশে রয়েছে। তালিকা প্রস্তুতে আত্মীয়করণ করারও অভিযোগ রয়েছে অনেক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে সুবিধাভোগীদের নামের তালিকা প্রস্তুত করে উপজেলা পরিষদে জমা দেয়া হয়। ইউনিয়ন পরিষদের প্রস্তুতকৃত তালিকা যাচাই-বাছাই করতে গিয়ে অনিয়ম প্রকাশ পায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, বিশেষ করে আলগী দক্ষিণ ইউনিয়ন ও উত্তর আলগী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য এবং দলীয় নেতারা অসৎ উদ্দেশ্যে সুবিধাভোগীদের নামের পাশে তাদের মোবাইল নাম্বার না দিয়ে নিজের এবং নিজেদের ভাই, বোন, আত্মীয়স্বজনদের নাম্বার রেখে দিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌসী বেগম জানান, নিম্নমধ্যবিত্ত ও হতদরিদ্রদের তালিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা জমা দেয়ার পর বেশ কিছু নামের পাশে একাধিক নাম্বার থাকায় তালিকাগুলো পুনরায় তাদের কাছে পেরত পাঠানো হয়েছে। তালিকা পুনরায় সংশোধন করে জমা দেয়ার জন্য তাদেরকে বলা হয়েছে। এরপরও যদি তারা কোন অনিয়ম করে তবে তাদের তালিকা আমরা বাতিল করে দিব।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য বিল্লাল আখন জানান, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। সেখানে মানুষজনের মোবাইল নাম্বার না থাকায় হয়তো আমার নাম্বার দেয়া হয়েছে। বিষয়টি আমি গতকালকে পুনরায় সংশোধন করে উপজেলায় জমা দিয়েছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি সদস্য

৮ জুলাই, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সংক্ষিপ্ত জীবন : তিনি ছিলেন বাংলায় ১৩টি এবং উর্দুতে নয়টি বইয়ের রচয়িতা

img_img-1600487535

বাংলাদেশের ইসলামি শীর্ষ ব্যক্তিত্বদের অন্যতম ছিলেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী; যিনি হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও আমির ছিলেন।  তিনি ছিলেন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ও আল জামেয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মইনুল ইসলাম মাদ্রাসারও (হাটহাজারী মাদ্রাসা নামে পরিচিত) মহাপরিচালক।  তিনি ছিলেন বাংলায় ১৩টি এবং উদুর্তে নয়টি বইয়ের রচয়িতা । তিনি কয়েকটি ভাষায় কথা বলতে জানতেন। তার লেখা গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে; বাংলা ভাষায়- হক ও বাতিলের চিরন্তন দ্বন্দ্ব, ইসলামী অর্থ ব্যবস্থা, ইসলাম ও রাজনীতি, সত্যের দিকে করুন আহ্বান, সুন্নাত ও বিদ-আতের সঠিক পরিচয় এবং উর্দু ভাষায়- ফয়জুল জারি (বুখারির ব্যাখ্যা), আল-বায়ানুল ফাসিল বাইয়ানুল হক ওয়াল বাতিল, ইসলাম ও ছিয়াছাত এবং ইজহারে হাকিকাত প্রভৃতি। শাহ আহমদ শফীর জন্ম চট্টগ্রামের

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ