Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৪ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২০, ১২:০৫ এএম

মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের খোলা চিঠি 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার দক্ষ ও সাহসী নেতৃত্বে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আপনি উন্নত বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশের প্রতিটি মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ সকল সরকারি ও স্বায়ত্ত¡শাসিত স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানকে রোগ নির্ণয়ের জন্য অত্যাধুনিক মেশিনপত্র দিয়ে ঢেলে সাজিয়েছেন। কিন্তু, দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এসব মেশিনপত্র মানব সেবায় যথাযথ কাজে আসছে না। কারণ এসব মেশিনপত্র যারা দক্ষতার সাথে পরিচালনা করে সঠিক রোগ নির্ণয় করে থাকেন তারা হলেন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট। পরিতাপের বিষয় হচ্ছে, আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে বিগত বার বছর যাবৎ মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের কোনো নিয়োগ নাই। এর ফলে এরই মধ্যে প্রায় চল্লিশ হাজার মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পাস করে বেকার আছে এবং মানবেতর জীবনযাপন করছে। আবার অনেকে হারিয়েছেন সরকারি চাকরির বয়সও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী ১ জন ডাক্তারের অনুপাতে ৩ জন নার্স এবং ৫ জন রোগনির্ণয়কারী মেডিকেল টেকনোলজিস্ট থাকতে হবে। আমাদের দেশে সরকারিভাবে একজন ডাক্তার এর অনুপাতে রোগনির্ণকারী মেডিকেল টেকনোলজিস্ট আছে মাত্র ০.৩২ জন। এছাড়াও বাংলাদেশের প্রতিটি মেডিকেল কলেজ, হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ সকল সরকারি ও স্বায়ত্ত্বশাসিত স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের আনুপাতিক হারে বর্তমানে সরকারি মেডিকেল টেকনোলজিস্ট প্রয়োজন প্রায় এক লক্ষ আটাশ হাজার পাঁচাত্তর জন। অথচ, সৃষ্ট পদ আছে সাত হাজার নয়শত বিশটি। আর বর্তমানে কর্মরত মেডিকেল টেকনোলজিস্ট রয়েছে পাঁচ হাজার একশত চুঁরাশি জন। যা অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ে গঠিত স্বাস্থ্য খাতের জন্য খুবই অপ্রতুল। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সমীপে আমাদের বিনীত নিবেদন এই যে, মেডিকেল টেকনোলজিস্টদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে যথাযথ মূল্যায়ন ও আপনার নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে নিয়োগ দান করে বর্তমানের মহামারী (কভিড ১৯) মোকাবিলাসহ আপনার প্রতিষ্ঠিত অত্যাধুনিক স্বাস্থ্যখাতকে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরিচালনার জন্য আপনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
মো. নুরুজ্জামান সোহেল ও
মু. রিপন শিকদার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

২৩ মে, ২০২০
২২ মে, ২০২০
১৯ মে, ২০২০
১৮ মে, ২০২০
১৬ মে, ২০২০
১৫ মে, ২০২০
১২ মে, ২০২০
১১ মে, ২০২০
১০ মে, ২০২০
৯ মে, ২০২০
৭ মে, ২০২০
৫ মে, ২০২০
৪ মে, ২০২০
৩ মে, ২০২০
৩০ এপ্রিল, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ