Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ট্যাক্স ও ভ্যাট রিটার্নের শাস্তি এড়াতে আইন মন্ত্রণালয়ের দুই অধ্যাদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২০, ১২:০৪ এএম

‘ইনকাম ট্যাক্স (সংশোধন) অধ্যাদেশ-২০২০’ এবং ‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক (সংশোধন) অধ্যাদেশ-২০২০’ জারি করেছে আইন মন্ত্রণালয়। গত বুধবার মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষযক বিভাগ প্রেসিডেন্টের আদেশে অধ্যাদেশ দু’টি জারি করে। ফলে যথা সময়ে আয়কর ও মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) পরিশোধ করতে না পারলেও গ্রাহককে জরিমানা এবং সুদ দিতে হবে না। করোনাভাইরাস মহামারী বিবেচনায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এরই মধ্যে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন মন্ত্রণালয়। এর আগে গত ৭ মে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে অধ্যাদেশ দুটির চ‚ড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।
মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইনের একটা বিধান অনুযায়ী, প্রত্যেক মাসের রিটার্ন পরের মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে জমা দিতে হয়। কিন্তু চলমান করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যে ব্যবস্থা-বাণিজ্য, অফিস-আদালত বন্ধ থাকার ফলে এই বিধান অনুসরণ করা সম্ভব হয়নি। বিধান রয়েছে, যদি ১৫ তারিখের মধ্যে রিটার্ন দাখিল না করা হয় তাহলে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও প্রতি একদিনের জন্য দুই শতাংশ করে সুদ গুণতে হবে। অন্যদিকে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে সাধারণ ছুটি চলায় গত ২৬ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত আয়কর বিভাগের সকল দাফতরিক কার্যক্রম বন্ধ।
ইতিমধ্যে করদাতারা এবং আয়কর কর্তৃপক্ষও ১৯৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশের কতিপয় ধারার বিধান অনুযায়ী কার্যক্রম পরিপালন ও গ্রহণ করতে পারেননি। এ কারণে করদাতাদের ওপর জরিমানা ও সুদ আরোপ এবং আয়কর কর্তৃপক্ষের ক্ষেত্রে সময় অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ না করার কারণে রাজস্ব হারানোর দায় আরোপের আইনগত আশংকা সৃষ্টি হয়েছে। এজন্য এ দুটি আইন সংশোধনের উদ্যোগ নেয়া হয়। তবে সংসদ অধিবেশন না থাকায় তা অধ্যাদেশ আকারে জারীর সিদ্ধান্ত হয়। সংশোধিত আয়কর অধ্যাদেশে জরিমানা ও সুদ এবং দায় আরোপের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট পক্ষেও কোনো ধরণের ব্যক্তিগত সংশ্লেষ বা অবহেলা না থাকায় শুধু উদ্ভূত পরিস্থিতে এ ধরণের আইনগত দায় সৃষ্টি হয়।
এটি মওকুফের জন্য করোনাভাইরাসসহ বিভিন্ন ‘এপিডেমিক’, ‘পেনডেমিক’, ‘ওয়ার অ্যান্ড এনি আদার অ্যাক্ট অব গড’ উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪-তে একটি নতুন ধারা ১৮৪জি সংযোজন করার কার্যক্রম নেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ