Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

করাচিতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৯৭, জীবিত উদ্ধার ২

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০২০, ৪:৩৫ পিএম

পাকিস্তানের করাচিতে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৭ জনে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার দুর্ঘটনা ঘটার পর ৭৩ জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। শনিবার সকাল পর্যন্ত আরও ২৪ জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আশ্চর্যজনক ভাবে ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছেন ওই বিমানটির ২ যাত্রী। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে লাহোর থেকে উড্ডয়ন করে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স (পিআইএ)-এর এয়ারবাস এ৩২০। করাচি বিমানবন্দরে নামার মিনিট খানেক আগে ভেঙে পড়ে ওই বিমানটি। বিমানবন্দরের খুব কাছে ঘনবসতিপূর্ণ জিন্না গার্ডেন এলাকার একটি আবাসনের উপর ভেঙে পড়ে এটি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জামিয়েছেন, দুর্ঘটনার আগে বিমানটি একটি মোবাইল টাওয়ারে ধাক্কা মারে।

জানা গিযেছে, ওই বিমানে মোট ৯১ জন যাত্রী ছিলেন। তার মধ্যে ছিলেন ৩১ জন মহিলা। সেই সঙ্গে ছিলেন ৮ জন বিমানকর্মীও। তাদের মধ্যে মোট ১৯ জনকে শনাক্ত করা গিয়েছে। তবে মৃতদের মধ্যে ওই আবাসনের বাসিন্দাদের কেউ রয়েছেন কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। দুর্ঘটনাস্থল ঘিরে রেখে এখনও তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে।

সিন্ধ প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বিমান দুর্ঘটনায় ঠিক কত জন আহত হয়েছেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। বিমানটি যে আবাসনের উপরে ভেঙে পড়েছিল, মনে করা হচ্ছে, সেখানকার ২৫ থেকে ৩০ জন বাসিন্দা আহত হয়েছেন। বিমান দুর্ঘটনার জেরে কিছু গাড়িও ধ্বংস হয়েছে।

দুর্ঘটনার কবলে পড়েও যে দুই জন আশ্চর্যজনক ভাবে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তারা হলেন, ব্যাঙ্ক অব পাঞ্জাবের প্রেসিডেন্ট জাফর মাসুদ ও মোহাম্মদ জুবায়ের নামের একজন ইঞ্জিনিয়ার। মাসুদের শরীরের চার জায়গায় হাড় ভেঙেছে। অন্য দিকে দুর্ঘটনায় শরীরের কিছু অংশ পুড়ে গিয়েছে জুবেরের। তবে দু’জনেই হাসপাতালে স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছেন।

পিআইএ সূত্রে জানা গিয়েছে, পাইলট এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি)-কে শেষ বারের জন্য যে বার্তা দিতে পেরেছিলেন তাতে স্পষ্ট, বিমানের ল্যান্ডিং গিয়ারে সমস্যা ছিল। বিমানে আগে থাকতেই কোনও সমস্যা ছিল কিনা সে প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে। তবে সেই সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন পিআইএ-র চিফ এগজিকিউটিভ এয়ার ভাইস মার্শাল আরশাদ মালিক। সূত্র: খালিজ টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ