Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ফুলপুরে বৃদ্ধ মা’কে পিটিয়ে হত্যা করেছে গর্ভজাত সন্তান

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ মে, ২০২০, ৩:১৭ পিএম

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলায় সমলা বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে নিজের গর্ভজাত সন্তান। শনিবার সন্ধ্যার পর উপজেলার রহিমগঞ্জ ইউনিয়নে দোয়াই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সমলা বেগম মৃত আব্দুল কদ্দুছের স্ত্রী। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য আজ রবিবার ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফুলপুর থানা ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ফুলপুর উপজেলার রহিমগঞ্জ ইউনিয়নে দোয়াই গ্রামের সমলা বেগমের স্বামী আব্দুল কদ্দুছ কয়েক বছর আগে মারা যায়। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে অনেক কষ্টে চলছিল অভাব-অনটনের সংসার । তার একমাত্র ছেলে শহিদুল পরিবার নিয়ে ঢাকায় থাকে। সে পেশায় গাড়িচালক। কয়েকদিন আগে ঈদ করতে বাড়িতে আসে ছেলে শহিদুল ইসলাম। শনিবার ইফতারির পর বৃদ্ধ মা সমলা বেগম ভাঙা পাতিলে রান্না করার সময় ছেলে শহিদুল মার কাছে জানতে চায় ভাঙা পাতিলে রান্না করা হচ্ছে কেন? তখন ´টাকার অভাবে পাতিল কিনতে পারি না´ সমলা বেগমের এমন উত্তরে ক্ষেপে যায় ছেলে শহিদুল। মা সমলা বেগম এ সময় পুত্রকে বলেন ´ঢাকা থেকে টাকা উপার্জন করে মায়ের খবর না নিয়ে আবার খবরদারি´। মা ছেলের কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কাছে থাকা খন্তা দিয়ে শহিদুল মায়ের মাথায় উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকে। ছেলে আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে বৃদ্ধা সমলা বেগম। এ সময় মায়ের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এসে উদ্ধার করে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সমলা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনায় নিহত সমলা বেগমের ভাই কাজল মিয়া বাদী হয়ে মা হত্যাকারী শহিদুল ইসলামকে আসামি করে ফুলপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। শহিদুল পলাতক থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। মামলাটি তদন্ত করছেন ফুলপুর থানার এসআই জাহিদ।

ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইমারত হোসেন গাজী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহত সমলা বেগমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য আজ রবিবার ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মা হত্যাকারী শহিদুলকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন