Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

ঈদের পরদিনও ঢাকা ছাড়ছে মানুষ

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২০, ১২:৪২ পিএম

ঈদের পরদিনও ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। রাজধানীর টার্মিনালের আশপাশে ভাড়ায় যাওয়া প্রাইভেট কার ও ট্যাক্সিক্যাবের জটলা। যাত্রীর অপেক্ষায় চালকরা। মহাসড়কে মাইক্রেবাস ও প্রাইভেট কারের আধিক্য। অন্যদিকে, মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে ব্যক্তিগত গাড়ি ও যাত্রীদের চাপ রয়েছে। পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে কয়েকশ’ যানবাহন। ভিড় বেড়েছে মাওয়া এবং দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটেও। এখনো বন্ধ রয়েছে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল। এ কারণে যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে ফেরিতে।
রাজধানীর শনিরআখড়া বাস স্ট্যান্ডে সকালে বেশ কিছু প্রাইভেট কার যাত্রীর অপেক্ষায় ছিল। খোরশেদ নামে এক চালক জানান, ভোরে বেশ কয়েকটি প্রাইভেট কার নোয়াখালী, কুমিল্লা ও সিলেটের যাত্রী নিয়ে ছেড়ে গেছে। ঈদের আগে যাত্রীদের ভিড়ের কারণে শেয়ারে যাত্রী তোলার সুযোগ ছিল। এখন যাত্রী কম বলে রিজার্ভ করেই যাচ্ছেন যাত্রীরা। ভাড়া দূরত্বভেদে ৬ থেকে ৮ হাজার টাকা।
গাবতলী টার্মিনালের মালিক সমিতির এক নেতা জানান, ভোর থেকেই মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার যাচ্ছে ঢাকার বাইরে। যাত্রীরা টার্মিনালের আশপাশ থেকেই সেগুলো দরদাম করে ঠিক করছে।
এদিকে, শিবচরের কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বিআইডব্লিউটিসি) মো. জামিল হোসেন জানান, ঢাকা থেকে আজও হাজার হাজার মানুষ কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুট হয়ে বাড়ি ছুটছেন। অন্যদিকে কোনো রকম বিড়ম্বনায় যাতে না পড়তে হয়, সেকারণে কর্মস্থল রাজধানী ঢাকায় যোগ দিতে আগেভাগেই পারাপার হচ্ছেন অনেক যাত্রী। সকাল থেকে ঘাটের উভয় পাড়ে বেড়েছে ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ। পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ছোটবড় কয়েকশ’ যানবাহন। যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ১৭টি ফেরির মধ্যে ১৪টি ফেরি এই নৌরুটে চলাচল করছে।
তিনি জানান, ফেরিতে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে এসে বিপাকে পড়ছে যাত্রীরা। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কেউ কেউ পায়ে হেঁটে আবার কেউ ছোট ছোট যানবাহনে ৩ থেকে ৪ গুণ অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে নিজ নিজ গন্তব্যে ছুটছেন। তবে, মাদারীপুরের ঢাকা-বরিশাল ও ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে পুলিশের চেকপোস্ট থাকলেও তা ছিল অকার্যকর। এতে অবাধে যাতায়াত করছে মানুষ। এরমধ্যে কোথাও কাউকেই মানতে দেখা যায়নি স্বাস্থ্য বিধি।
উল্লেখ্য, দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ রাজধানী ঢাকার সাথে যাতায়াতের জন্য মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুট ব্যবহার করেন। স্বাভাবিক সময়ে প্রতিদিন ৩০ হাজার মানুষ যাতায়াত করলেও ঈদে এর সংখ্যা বেড়ে যায় কয়েকগুণ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঈদ


আরও
আরও পড়ুন