Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

করোনার ক্ষতি সামলাতে এবার ৬০০ জন কর্মী ছাঁটাই করল উবার ইন্ডিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২০, ৫:৩৩ পিএম

করোনা সঙ্কটে নিজেদের ক্ষতি কমাতে এবার ভারতে ৬০০ কর্মী ছাঁটাই করল উবার। এর ফলে উবার ইন্ডিয়ায় কর্মরত ২ হাজার ৬০০ জনের মধ্যে এক–চতুর্থাংশ বেকার হয়ে পড়ল বলে জানা গিয়েছে। উবার অ্যাপের পক্ষ থেকে এই খবরটি মঙ্গলবার নিশ্চিত করো হয়েছে।

গত সপ্তাহেই উবারের প্রতিদ্বন্দ্বী ওলা তাদের এক-তৃতীয়াংশ অর্থাৎ ১ হাজার ৪০০ কর্মীকে ছাঁটাই করার পর উবারও একই রাস্তায় হাঁটল। উবার ইন্ডিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়ার সভাপতি প্রদীপ পরমেশ্বরণ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘‌চালক এবং রাইডার সহ অন্যান্য বিভাগেও প্রায় ৬০০ জন বা ২৫ শতাংশ পূর্ণ সময়ের কর্মী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। এই ছাঁটাই এই মাসে হওয়া বিশ্বব্যাপী কর্মসংস্থান হ্রাসের একটি অংশ।’

যদিও উবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে যাদের ছাঁটাই করা হয়েছে তাদের ১০ থেকে ১২ সপ্তাহের বেতন দেয়া হবে। এছাড়া আগামি ছয় মাস তারা স্বাস্থ্যবিমার সুবিধাও পাবেন। সংস্থার পক্ষ থেকে কর্মীদের অন্যান্য সাহায্য করা হবে। পরমেশ্বরণ জানিয়েছেন যে, করোনার প্রভাবে উবার ইন্ডিয়ার কাছে কর্মী সংখ্যা কম করা ছাড়া আর কোনও উপায়ও ছিল না।

গত সপ্তাহে, উবার ইন্ডিয়ার মূল সংস্থা মার্কিন উবার টেকনোলজিস করোনাভাইরাস মহামারীর পরিস্থিতি সত্ত্বেও লাভজনক থাকার জন্য ২৩ শতাংশ কর্মী হ্রাস করার ঘোষণা করে। চলতি মাসের শুরুর দিকেই উবার টেকনোলজিস জানিয়েছিল যে ৬ হাজার ৭০০ টি কর্মসংস্থান ক্ষতিগ্রস্থ হবে এবং অ্যাপ-ক্যাব সহ খাদ্য সরবরাহের ক্ষেত্রে উবার নিজের মূল ব্যবসাগুলিতে মনোনিবেশ করবে। পরমেশ্বরণ ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে বিবৃতিতে বলেন, ‘‌আজকে অত্যন্ত দুঃখের একটি দিন উবার পরিবার ছেড়ে কর্মীরা চলে যাচ্ছেন, যেটা আমাদের কাছেও খুবই দুঃখের বিষয়। আমি আমার সব সহ-কর্মীদের কাছে ক্ষমা চাইছি যারা এতদিন উবার ইন্ডিয়াকে সমর্থন ও পরিষেবা দিয়ে এসেছে, আমি তাদের প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’‌ সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ