Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর মসজিদ অনুদান আত্মসাতের অভিযোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ইউনিয়ন লিডারের কারাদণ্ড

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২০, ৭:২৮ পিএম

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মসজিদের অনুদানের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক ইউনিয়ন লিডারকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। নিজ নিয়ন্ত্রণাধীন মসজিদগুলোতে অনুদানের পুরো টাকা না দিয়ে কম প্রদান ও কিছু ভূয়া মসজিদ দেখিয়ে আত্মসাতের অভিযোগে সদর উপজেলার শুখানপুকুরী ইউনিয়নের মোঃ জয়নাল আবেদিন ওরফে মণ্ডল (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।মঙ্গলবার (২৬ মে) দুপুরে এ সাজা প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন।
দÐপ্রাপ্ত মোঃ জয়নাল আবেদিন ওরফে মণ্ডল ওই ইউনিয়নের ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ইউনিয়ন লিডার এবং ব্যাংরোল বুঝারিপাড়া মসজিদের খতিব। তার পিতার নাম তোয়াজ শেখ।
সদর ইউএনও’র ফেসবুক পেইজ থেকে জানা যায়, করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রত্যকটি মসজিদে ৫০০০ টাকা করে অনুদান প্রদানের সিদ্ধান্ত নেন। সে অনুযায়ি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় পৌরসভাসহ ১১৪০টি মসজিদে ঈদের আগেই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা প্রদান করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার। ইসলামিক ফাউন্ডেশন সমুদয় টাকা উত্তোলন করে তাদের প্রতিনিধিদের মাধ্যমে ইউনিয়নের মসজিদগুলোতে সেই টাকা বিতরণ করেন।
এদিকে সদর উপজেলার শুখানপুকুরী ইউনিয়নের ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি জয়নাল আবেদিন ওরফে মণ্ডল তার নিয়ন্ত্রণাধীন মসজিদগুলোতে প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দ পাঁচ হাজার টাকা করে না দিয়ে কোন মসজিদে ২০০০, কোন মসজিদে ৩০০০ আবার কোথাও ২৫০০ টাকা করে বিতরণ করেন। শুধু তাই নয় ওই ইউনিয়নে ৬টি ভূয়া মসজিদ দেখিয়ে ১. রাসেদ, পিতা-শুকুর আলী মাস্টার ২. সাহার আলী, পিতা- ভুতু শেখ ওরফে কোরবান ৩. শুকুর আলী, পিতা-ভুতু শেখ ওরফে কোরবান ৪. ইলিয়াস, পিতা-রহমান ৫. আলম, পিতা-ইয়ামুদ্দিন ও বদিউল, পিতা-কানচিয়া মুন্সিকে মসজিদের মুয়াজ্জিন বানিয়ে ৩০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।
বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে গতকাল রাতেই ওই ইউনিয়নের ইউপি মেম্বার আমজাদসহ স্থানীয়রা জয়নাল আবেদিন ওরফে মণ্ডলকে ইউনিয়ন পরিষদে আটক করে রাখেন। আজ তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে তিনি তার নিজের দোষ স্বীকার করেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মসজিদের অনুদানের টাকা কম প্রদান ও ভূয়া মসজিদ দেখিয়ে অনুদানের টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক ডঃ কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে মসজিদে মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অনুদানের টাকা আত্মসাৎকারী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। আমরা প্রত্যেকটি মসজিদে খোঁজ-খবর নেয়া শুরু করেছি। অনিয়ম পেলেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

Show all comments
  • Mohammad Sirajullah, M.D. ২৬ মে, ২০২০, ৮:৪২ পিএম says : 0
    This guy should have been executed under the circumstances. ^ months imprisonment is not proper punish
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন