Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

চীনের সামরিক যুদ্ধের প্রস্ততি : ১৭ হাজার ৮শ’ কোটি ডলারের বাজেট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০২০, ৬:১০ পিএম

চীন সশস্ত্র যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি বর্ধিত করে এবছর তার সেনাবাহিনীর জন্য ১৭ হাজার ৮শ’ কোটি ডলারের বাজেট ঘোষণা করেছে। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং দেশটির সেনাবাহিনীকে উন্নত করার জন্য তার আকাক্সক্ষাকে ব্যক্ত করার কয়েক দিন পরেই এ ঘোষণা আসে। দেশটির সরকারী গণমাধ্যমের তথ্য অনুসারে, ‘শি কার্যকরভাবে নিয়মিত করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রনের পাশাপাশি ২০২০ সালে জাতীয় প্রতিরক্ষা ও সশস্ত্র বাহিনীকে শক্তিশালী করার উদেশ্য এবং লক্ষ্য অর্জনের উপর জোর দিয়েছেন।’ চীনের সরকারী বার্তা সংস্থা শিনহুয়া জানিয়েছে যে, পিপলস লিবারেশন আর্মি এবং পিপলস আর্মড পুলিশ ফোর্সেস’র প্রতিনিধি দলের সাথে পূর্ণাঙ্গ বৈঠকে যোগ দেওয়ার সময় শি এই বিষয়ে মতব্যক্ত করেন।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা গেছে যে, দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন করোনাভাইরাস মহামারীটির ‘জাতীয় সুরক্ষার উপর গভীর প্রভাব’ নিয়ে কীভাবে শি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, তা বিস্তারিত তুলে ধরে। প্রেসিডেন্ট সামরিক প্রশিক্ষণের নতুন ধরণের উপায়গুলি খতিয়ে দেখতে এবং সশস্ত্র যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি জোরদার করতে বলেছেন বলে জানা যায়। গত সপ্তাহে চীন তার জাতীয় বাজেটের বিশদ বিবরণী প্রকাশ করে, যাদে দেখা গেছে যে, অর্থনীতিতে করোনাভাইরাসের শক্ত আঘাত সত্ত্বেও দেশটির এবছরের সামরিক বরাদ্দ ২০১৯ সালে তুলনায় ৬.৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে যা ১.২ ট্রিলিয়ন ইউয়ান বা ১৭ হাজার ৮শ’ কোটি ডলারের চেয়ে বেশি। যদিও বড় উন্নতি, কিন্তু এটি বিগত ৩ দশকের মধ্যে দেশটির সবচেয়ে ধীরগতির সামরিক বৃদ্ধি হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। তবে, সামরিক বিনিয়োগের দিক থেকে পর্যালোচনা করলে ব্যয়ের ক্ষেত্রে চীন যুক্তরাষ্ট্রের পর ২ য় স্থানে রয়েছে।
এমাসের শুরুর দিকে সামরিক ব্যয়ের রূপরেখা টানার পর চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস’র প্রতিনিধিদের সাথে আলাপকালে বলেছেন, ‘আমরা জাতীয় প্রতিরক্ষা ও সামরিক ক্ষেত্রে সংস্কার আরো গভীর করব, আমাদের রসদ এবং সরঞ্জামের যোগান ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলব, এবং প্রতিরক্ষা ও প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিজ্ঞানের উদ্ভাবনীমূলক উন্নয়নের প্রসার করবো।’ তিনি বলেন, ‘আমরা জাতীয় প্রতিরক্ষা সংহতকরণ ব্যবস্থার উন্নতি করব এবং সেনাবাহিনী ও সরকার এবং সেনাবাহিনী ও জনগণের মধ্যে যে নিরেট একতা থাকবে, তা নিশ্চিত করব।’
করোনাভাইরাস মহামারী যা চীনের মূল ভূখ- উহান শহরে উদ্ভূত বলে মনে করা হয়, বিষয়টিকে কেন্দ্র করে চীন যখন অন্য দেশগুলির সাথে ক্রমবর্ধমান বিরোধের মুখোমুখি, ঠিক সেসময় চীনের এই সামরিক শক্তি বৃদ্ধির বাজেটের খবরটি বহির্বিশে^র প্রকাশ করে দেশটি। সূত্র: নিউজউইক।

 



 

Show all comments
  • jack ali ২৮ মে, ২০২০, ১১:৫৪ এএম says : 0
    O'Allah let China muslim killer/rapist and Modi muslim killer/rapist fight each other and wipe out their military so that we can live in peace in our region. Ameen
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-ভারত


আরও
আরও পড়ুন