Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, লম্পট দাদা কারাগারে

লালমনিরহাট জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০২০, ২:০৪ পিএম

টানা ধর্ষণে আন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে অবুঝ এক শিশু। আর যার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে সেই লম্পটের বয়স ৫০।
লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১২) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এতে ওই ছাত্রী তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রতিবেশী লম্পট দাদা মোক্তার আলীকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ছাত্রীকে পুলিশ হেফাজতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বুধবার দুপুরে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার (২৬ মে) রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় মোক্তার আলীর বিরুদ্ধে মামলা করেন। ওই মামলায় মোক্তারকে গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার (২৭ মে) দুপুরে লালমনিরহাট আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অভিযুক্ত মোক্তার আলী লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলর পাটগ্রাম ইউনিয়নের টেপুরগারী এলাকার আবুল খায়েরের ছেলে।

ওই স্কুলছাত্রী জানায়, ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তাকে ধর্ষণ করে আসছিল প্রতিবেশী দাদা মোক্তার। ঘন ঘন বমি ও খেতে না পারার কারণ খুঁজতে গিয়ে তার দাদি বুঝতে পারেন সে অন্তঃসত্ত্বা।

পাটগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মোহন্ত জানান, মেয়েটি তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। প্রাথমিক পরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়ার পর তার বাবার অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মোক্তার আলী মেয়েটিকে সাতদিন ধর্ষণের কথা জানিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন