Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

হাঁসের ঠোঁট হৃদপিন্ডের বিদ্ধ!

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২০, ১২:১৪ এএম

পৃথিবীতে এমন অনেক কিছু ঘটে যার কোনও ব্যাখ্যা হয় না। কখনো তা ভাল, কখনো মন্দ। কখনোও মির‌্যাকল, আবার কখনো এতটাই মর্মান্তিক যে মানুষ হতবাক হয়ে যায়।
সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে যা দেখে লোকজন তো বটেই, বিশেষজ্ঞরাও হতবাক। এ যেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কানাডার সরাসরি সঙ্ঘাত। তবে রাজনীতির ময়দান বা সীমানার রণাঙ্গণে নয়। এই লড়াই হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হ্রদে। দু’টি পাখির মধ্যে।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পাখি ঈগল। শিকার ধরতে ঈগলের জুড়ি মেলা ভার। অন্যদিকে হাঁস নিতান্তই নিরীহ এক পাখি। ক্ষিপ্রতা ও তেজে ঈগলের ধারে কাছেও নেই। এই হাঁস একেবারেই সাধারণ হাঁস। তবে এর সম্মানও কিছু কম নয়। কানাডার ডলারে এর প্রতিকৃতি খোদাই করা আছে। এই সাদাসিধে হাঁসের ঠোঁটে ঈগলের হৃদপিÐ ছিড়ে গেছে। হ্রদের পানিতে নিথর হাঁস ও ঈগলকে ভাসতে দেখা যায়।

ঈগলের খুব প্রিয় খাবার বাচ্চা হাঁস। হ্রদের পানি থেকে প্রায়ই এই হাঁসের বাচ্চাদের নিজেদের শিকর বানায় ঈগলরা। এবারও এই ঈগলটি সেই প্রচেষ্টাতেই হাঁসকে টার্গেট করে নিচে নেমেছিল। কিন্ত নিচে যে তার জন্য সাক্ষাৎ যমদূত বসে আছে, সেটি ঈগল ঠেরও পায়নি।

হাঁসের ঠোঁট সরাসরি ঢুকে যায় ঈগলের হৃদযন্ত্রে। যুক্তরাষ্ট্রে ঈগল শিকার নিষিদ্ধ। সনাতন কিছু অনুষ্ঠান ছাড়া ঈগল হত্যা অপরাধ বলে গণ্য হয়। স্বাভাবিকভাবেই হ্রদের পানিতে ঈগল ও তার পাশে একটি বাচ্চা হাঁসের দেহ ভাসতে দেখে অবাকই হয়েছিলেন স্থানীয়রা।

ঈগলের দেহাবশেষ উইসকনসিনের মেডিসনে ন্যাশনাল ওয়াইল্ডলাইফ হেলথ সেন্টারে পাঠানো হয়। কীভাবে মারা গেল, তা জানতে শুরু হয় পর্যবেক্ষণ। যেহেতু ঈগলের দেহের পাশে হাঁসের দেহও পাওয়া গিয়েছিল।
বিশেষজ্ঞরা ঈগলের দেহ কাটাছঁড়া করার সময় সে কথা মাথায় রেখেছিলেন। তখনই উদ্ঘাটিত হয় এই নতুন তথ্য। জানা যায় ঈগলের হৃদযন্ত্রে ছুরির মতো আঘাত করেছিল হাঁসের ঠোঁট। যার ফলে মৃত্যু হয়। নিরীহ পাখি হাঁসের আঘাতে ঈগলের মতো ক্ষিপ্র শিকারি মারা যাবে, এ বিশ্বাসযোগ্য নয়। হাঁস যে ঈগলকে আক্রমণ করতে পারে, তাও বিশ্বাসযোগ্য নয়। কিন্তু অনেক সময় সত্যিটা কল্পনার চেয়েও অকল্পনীয় হয়। এই ঘটনা তারই উদাহরণ।

 



 

Show all comments
  • ash ২৯ মে, ২০২০, ৩:৫০ এএম says : 0
    HA JEMON USA V IRAN !!! NEXT TIME USA WILL THINK 100 TIME S TO ATTACK IRAN
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ