Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশীকে গুলি করে হত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২০, ১:২২ এএম | আপডেট : ১:২৯ এএম, ২৯ মে, ২০২০

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশীসহ ৩০ অভিবাসীকে গুলি করে হত্যা করেছে এক লিবীয় মানবপাচারকারীর পরিবারের সদস্যরা। এসময় ৪ জন আফ্রিকানকেও তারা হত্যা করেছে। আহত হয়েছে আরো ১১ জন।

উত্তর আফ্রিকার দেশটির ইংরেজি দৈনিক দ্য লিবিয়া অবজারভারের ফেসবুক পেজে আজ বৃহস্পতিবার এক পোস্টে প্রথম এ তথ্য জানানো হয়।

পত্রিকাটি জানায়, লিবিয়ার নাফুসা পার্বত্যাঞ্চলে জাবাল আল গারবি জেলার মিজদা শহরে এ ঘটনা ঘটেছে। ধারণা করা হচ্ছে, মানবপাচারকারী ওই লিবীয় অভিবাসীদের হাতেই খুন হয়েছিল। এর প্রতিশোধ নিতেই তার পরিবারের সদস্যরা নির্বিচারে এতোগুলো মানুষকে হত্যা করেছে।

লিবিয়ার জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সও এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, আহত ১১ জনকে জিনতান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংগঠনের মুখপাত্র সাফা মেসেহলি রয়টার্সকে বলেন, আমরা এইমাত্র খবর পেয়েছি। এর বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। যারা বেঁচে গেছেন তাদের কীভাবে সাহায্য করা যায় সেটি দেখছি।

আহত ১১ জনও বাংলাদেশী নাগরিক বলে জানা গেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমে জানানো হয়েছে, এক মানবপাচারকারী গত মঙ্গলবার রাতে অভিবাসীদের হাতে খুন হয়। এরপর তার সহযোগী এবং পরিবারের সদস্যরা প্রতিশোধ নিতে অভিবাসীদের ক্যাম্পে নির্বিচারে গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই ৩০ জন নিহত হন।

জাতিসংঘ সমর্থিত লিবিয়ার সরকারের (জিএনএ) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এসব অভিবাসী মিজদা শহরের এক মানাবপাচারকারীর কাছে জিম্মি ছিলেন। কোনোভাবে ওই পাচারকারী গতকাল বুধবার রাতে অভিবাসীদের হাতে খুন হন। পরে তার সহযোগী এবং আত্মীয়স্বজনরা জিম্মি অভিবাসীদের ক্যাম্পে নির্বিচারে গুলি চালালে ঘটনাস্থলে ২৬ জন বাংলাদেশীসহ ৩০ জন নিহত হন। আহত ১১ জন বাংলাদেশীকে বর্তমানে জিনতান হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সূত্র: দ্য লিবিয়া অবজারভার, রয়টার্স



 

Show all comments
  • Md Suman ২৯ মে, ২০২০, ১:৪২ এএম says : 0
    এ কাজ লিভিয়ার লোকজন করেছে না হয় এত গুলো মানুষ কে কিভাবে মারে
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Arif ২৯ মে, ২০২০, ১:৪২ এএম says : 0
    বাংগালীরা এইভাবে যায় কেন ইউরোপে?
    Total Reply(0) Reply
  • Rafe Islam ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৩ এএম says : 0
    শুনে খারাপ লাগছে, আমাদের ভাইগুলো এমন নির্মমভাবে সন্ত্রাসীদের হাতে মারা গেল।আল্লাহ তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করছি..
    Total Reply(0) Reply
  • Md Amin ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৪ এএম says : 0
    সারা বিশ্বে দক্ষ মানুষের অনেক চাহিদা। এমন না জে সবার পি এইচ ডি ডিগ্রি লাগবে। দেশে দক্ষ মানুষ তইরি না করলে এভাবে অবইধভাবে বিদেশ যেতে গেলে হয় সাগরে ডুবে মরতে হবে না হয় মানুষের হাতে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Ali Refai ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৪ এএম says : 1
    আমি একে বাংলাদেশীদের উপর ভয়ংকর সন্ত্রাসী হামলা বলেই অভিহিত করবো ।
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Alam ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৪ এএম says : 0
    এরকম ঘটনা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। স্থানীয় দূতাবাসের উচিৎ বিষয়টির খোঁজখবর নিয়ে দেশবাসীকে জানানো এবং দোষীদের বিচারের লক্ষ্যে লিবিয়া সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করা।
    Total Reply(0) Reply
  • Umed Raja ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৫ এএম says : 0
    Why people are fleeing from so called developed Bangladesh with 8% GDP growth? Why people are so desperate to risk their life than staying in Bangladesh?
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Alam ২৯ মে, ২০২০, ১:৪৫ এএম says : 1
    হঠাৎ নিউজটা দেখে আতকে উঠলাম। মানব পাচারকারীরা মরে গিয়েও তাদের কালো থাবা থেকে বাচতে পারলো না হতভাগ্য অভিবাসীরা?
    Total Reply(0) Reply
  • azim anowar ২৯ মে, ২০২০, ৪:৪৩ এএম says : 0
    Inna lillahi owa Inna ilaihi raziun. খুবই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা.. শুনে খুব কষ্ট অনুভব হোল.. আল্লাহ আমাদের ভাইদের মাফ করুন.. আর খুনিদের সঠিক বিচার করুক.. প্রবাসী মন্ত্রী এবার একটু নেক নজরে মামলাটা দেখুন..
    Total Reply(0) Reply
  • azim anowar ২৯ মে, ২০২০, ৪:৪৩ এএম says : 0
    Inna lillahi owa Inna ilaihi raziun. খুবই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা.. শুনে খুব কষ্ট অনুভব হোল.. আল্লাহ আমাদের ভাইদের মাফ করুন.. আর খুনিদের সঠিক বিচার করুক.. প্রবাসী মন্ত্রী এবার একটু নেক নজরে মামলাটা দেখুন..
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Muzibur Rahman. ২৯ মে, ২০২০, ১১:২১ এএম says : 0
    Inna lillahi owa Inna ilaihi raziun.Amin. Very pathetic . We lost our Active Manpower. Family Lost Everything.Hope Allah will save their family .
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন