Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় এক ছাত্রীর আত্মহত্যা

আরেকজন আত্মহত্যার চেষ্টা করে হাসপাতালে

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০২০, ৬:৪০ পিএম

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় লিমা আক্তার (১৬) নামে এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। অন্যদিকে একই উপজেলার আরেক ছাত্রী বিউটি আক্তার(১৬) আত্মহত্যার চেষ্টা করে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিস্ট ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মংলা।

লিমা হরিপুর উপজেলার ৫নং হরিপুর সদর ইউনিয়নের তিনুয়া গ্রামে জহিরুল ইসলামের মেয়ে এবং হরিপুর দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলেন। দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধিনে হরিপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে লিমা এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছিলেন।
লিমার বাবা জহিরুল ইসলাম বলেন, ধান কাটার জন্য রোববার সকালে আমিসহ আমার স্ত্রী মাঠে যাই। এরপর দুপুর ১টার দিকে বাড়ি থেকে খবর আসে আমার মেয়ে লিমা গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ঝুলে আছে। সঙ্গে সঙ্গে মাঠ থেকে বাসায় আসি। এরপর লিমার গলা থেকে ফাঁস খুলে হরিপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার কবিরুল মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
এদিকে হরিপুরে এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় বিউটি আক্তার (১৬) নামে এক ছাত্রী কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করার ঘটনা ঘটেছে।
বিউটি আক্তার হরিপুর উপজেলার ৫নং হরিপুর সদর ইউনিয়নের বালিহাড়া গ্রামের বেলাল হোসেনের মেয়ে এবং মশানগাঁও দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। সে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধিনে মশানগাঁও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিউটি আক্তার এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছিলেন।
বিউটির বাবা বেলাল হোসেন বলেন, আমার মেয়ে বিউটি আক্তার মশানগাঁও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছিল । রোববার সকাল ১১টায় দিকে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারে সে পরীক্ষায় ফেল করেছে। এরপর আমাদের সবার অগোচরে দুপুরের দিকে কীটনাশক পান করে। কীটনাশক পান করার বিষয়টি আমরা জানার সঙ্গে সঙ্গে তাকে চিকিৎসার জন্য হরিপুর হাসপাতালে নিয়ে আসি। বিউটির শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার বিউটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে রের্ফাড করেন।
হরিপুর হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার কবিরুল বলেন, রবিবার দুপুর ১টার দিকে বিউটি আক্তার (১৬) নামে একজন কীটনাশক পান করা রোগী ভর্তি করা হয়েছিল। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে রের্ফাড করা হয়েছে।
পরিবার সূত্রে জানাযায়, বর্তমানে বিউটি আক্তার দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতাল চিকিৎসাধীন রয়েছে, তার অবস্থা এখনো আশংকাজনক ।
হরিপুর থানার ওসি আমিরুজ্জামান ঘটনা দুইটির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এখন পর্যন্ত এসব বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ