Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ভালো নেই সুন্দরবন

দেড়শ’ বছরে ৭৫ ঘূর্ণিঝড়

আবু হেনা মুক্তি | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২০, ১২:১১ এএম

ভালো নেই সুন্দরবন। গত দেড়শ’ বছরে ৭৫টি প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় সুন্দরবন। তারপরও সুন্দরবন বারবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। গত বছরে বুলবুলের চেয়ে আম্পানে তিনগুণ বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন। তবে অতন্দ্র প্রহরীর মত উপক‚লবাসীকে রক্ষা করা সুন্দরবন আগামী ৬ মাসের মধ্যে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে; এমন আশাবাদ বিশেষজ্ঞদের।

ইতোমধ্যে সুন্দরবনের ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণে গঠিত ৪টি কমিটির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ঝড়ে ১২ হাজার ৩শ’ ৫৮টি গাছ ভেঙে পড়েছে। এর মধ্যে গরান গাছের বেশি ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ঝড়ে কমবেশি ডালপালা ভেঙে তছনছ হয়েছে কয়েক হাজার গাছের। পশ্চিম বন বিভাগের অবকাঠামোগত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে প্রায় সোয়া দুই কোটি টাকার। তবে বাঘ হরিণ বা অন্য প্রাণীর মৃতের খবর পাওয়া যায়নি। আর পূর্ব সুন্দরবনের দু’টি রেঞ্জে অর্ধশত গাছ ভেঙেছে। পূর্ব বনবিভাগে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকার অবকাঠামোগত ক্ষতি হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ১০ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে সুন্দরবনের ৪ হাজার ৫শ’ ৮৯টি গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সুন্দরবন, জন্ম থেকেই উপকূলবাসীকে রক্ষায় বিভিন্ন ঝড়ঝাপটায় আগলে রেখেছে। যে কারণে সুন্দরবনকে মায়ের মমতার সাথে তুলনা করা হয়।

সর্বশেষ আম্পানে সুন্দরবনের ওপর দিয়ে অতিক্রমকালে গাছপালার বাধায় দুর্বল হয়ে পড়ে। ভারতে আম্পানের মূল আঘাতের ২শ’ কি.মি. মধ্যে থেকেই সুন্দরবন বাতাসের গতিবেগ হ্রাসে ভূমিকা নিয়েছিল। বনবিভাগের সিএফ মো. মঈনুদ্দিন খান বলেন, সুন্দরবনকে ৬ মাস সময় দিলে অতীতের সিডর, আইলা, ও বুলবুলের আঘাতের ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার মত করেই আম্পানের ক্ষয়ক্ষতিও কাটিয়ে উঠবে আশা করি। গত দেড়শ’ বছরে ৭৫টি প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় সুন্দরবন। তার পরও সুন্দরবন বারবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. বশিরুল আল মামুন বলেন, সুন্দরবনের সব ধরনের গাছ কাটা নিষিদ্ধ। ক্ষতিগ্রস্ত হলেও গাছগুলো ওইভাবেই থাকবে। কোন গাছ কাটা হবে না। বন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে। পরিবেশবিদ হাসান মেহেদী বলেন, আম্পানে সাতক্ষীরা ও খুলনা রেঞ্জে বেশি ক্ষতি হয়। আম্পানকে প্রায় একাই ঠেকিয়ে দিয়েছে সুন্দরবনের অতন্দ্র প্রহরী বৃক্ষরাজি। এতে উপক‚লবাসী কিছুটা সুরক্ষিত থাকলেও বিধ্বস্ত হয়েছে সুন্দরবন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঘূর্ণিঝড়


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ