Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

হোয়াইট হাউজের সামনে বিক্ষোভ, ভয়ে একঘণ্টা মাটির তলার বাঙ্কারে ছিলেন ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২০, ১১:২৮ এএম | আপডেট : ১১:৩৯ এএম, ১ জুন, ২০২০

জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু নিয়ে প্রতিদিন মার্কিন কৃষ্ণাঙ্গদের তীব্র প্রতিবাদ চলছে। সেই প্রতিবাদের ঢেউ এসে লেগেছে ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রেসিডেন্টের বাসভবন হোয়াইট হাউজের বাইরেও। সেখানে শুক্রবার রাতে বিক্ষোভ এত ভয়ানক ছিল যে একঘণ্টার জন্য নিরাপত্তার স্বার্থে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আশ্রয় নিতে হয়েছিল মাটির তলার বাঙ্কারে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১ ঘণ্টা মাটির তলার বাঙ্কারে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। কারণপ্রতিবাদের তীব্রতা। আগেরদিন শনিবার রাত থেকে খবর আসতে থাকেহোয়াইট হাউজের সামনে জড়ো হয়েছেন হাজার হাজার প্রতিবাদী। তারা বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে টানা প্রতিবাদ করে চলেছেন।

রোববার রাতে হোয়াইট হাউজের সামনে আগুন লাগার ঘটনা প্রথমে সামনে আসে। রাত ১১ টার পর জড়ো হন সাধারণ মানুষ। হোয়াইট হাউজের কাছেই একাধির উৎস থেকে আগুন চোখে পড়ে। দেখা যায় একটি গাড়িতেও আগুন ধরিয়ে দিয়েছে উত্তেজিত জনতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক পোস্টে দেখা গিয়েছেসাধারণ মানুষ জড়ো হয়েছ্‌ কোথাও গ্রাফিতি আঁকছেনকোথাও জ্বলছে আতশবাজি। মার্কিন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, আমেরিকান ফেডারেশন অব লেবার এন্ড কংগ্রেস অব ইন্ডাস্ট্রিয়াল অর্গানাইজেশনস নামে সংগঠনটির ভবনে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে প্রতিবাদীরা।

তবে এর পরেও ট্রাম্প সুর নরম করতে চান না। প্রতিবাদীদের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে তিনি একের পর এক ট্যুইট করেছেন রোববার। তার অভিযোগ, ‘‌যারা কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু নিয়ে প্রতিবাদ করছেনতারা নৈরাজ্যবাদী। জাতীয় নিরাপত্তারক্ষীদের এখনই সব ব্যবস্থা নেয়া উচিত। সারা পৃথিবী আমেরিকাকে দেখে হাসছে।’‌ এছাড়াও তিনি অভিযোগ করেছেনপ্রতিবাদীরা প্রতিবাদের নামে গাড়ি ভাঙছেদোকান লুঠ করছে। ট্রাম্পের দাবি বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে গিয়ে দেশের প্রগতিশীল বামপন্থী শক্তিগুলি দেশের মধ্যে নৈরাজ্য চালাচ্ছে। সূত্র: ডেইলি মেইল, নিউইয়র্ক টাইমস।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রাম্প


আরও
আরও পড়ুন