Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

অবিলম্বে বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করে তেলের দাম কমান-খেলাফত মজলিস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২০, ৪:০৮ পিএম

অবিলম্বে বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করে জ্বালানি তেলের দাম ৬০ ভাগ কমানোর দাবি জানিয়ে খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের।
বাস-মিনিবাসের ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধিকে সর্ম্প্ণূ অযৌক্তিক আখ্যা দিয়ে খেলাফত মজলিস নেতৃদ্বয় আজ সোমবার এক বিবৃতিতে বলেন, করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চালাতে গিয়ে কম যাত্রী বহনের অযুহাতে বাস ভাড়া বাড়ানোর কোন যৌক্তিকতা নেই। পরিবহন মালিকদের খরচ না পোষালে সরকার তাদের প্রণোদনা দিতে পারে। যেহেতু বিশ^ বাজারে জ¦ালানি তেলের দাম রেকর্ড পরিমাণ কমে গেছে । এই মহামারী সঙ্কটকালে তেলের দাম ৬০ শতাংশ কমিয়ে জনদুর্ভোগ কমাতে হবে।
বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, তিন মাস লকডাউনের ফলে সরকারি চাকুরীজীবী ছাড়া সকল পেশার মানুষের আয় কমে গেছে। বেসরকারি চাকুরীজীবিরা অনেক ক্ষেত্রেই বেতন পাননি বা অর্ধেক পেয়েছেন। এ অবস্থায় যাতায়াতের জন্য বাস ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি মরার উপর খাড়ার ঘা’র শামিল। সরকার এভাবে জনগণের উপর জুলুম অব্যাহত রাখলে পরিণতি খুব ভয়াবহ হবে। জনগণের ধৈর্য্যরে বাঁধ ভেঙ্গে গেলে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না।

এছাড়া, আবাসিক পর্যায়ে ঢাকা ওয়াসার পানির বিল ২৫ শতাংশ বৃদ্ধির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে খেলাফত মজলিসের নেতৃদ্বয় বলেছেন, করোনভাইরাসের মধ্যে ওয়াসার পানির দাম ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অমানবিক। ৭ মাস পূর্বে ওয়াসার পানির দাম ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এখন আবার পানির বিল ২৫ শতাংশ বাড়িয়ে গত ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর করা হয়েছে। এই অবস্থায় সরকার ওয়ার পানির বিল বাড়িয়ে জনগণের উপর মারাত্মক জুলুম করছে। ওয়াসার লুটপাট, চুরি বন্ধ না করে সাধারণ জনগণের পকেট কাটায় ব্যস্ত সরকার। বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় অবিলম্বে ওয়াসার পানির বর্ধিত ২৫ শতাংশ মূল্য প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন