Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

৫২ বছরের পুরনো প্রেক্ষাগৃহ ‘অভিসার’ ভেঙ্গে কমিউনিটি সেন্টার

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২০, ৮:২৬ পিএম

ঢাকায় সিনেমার সোনালী যুগের সময়ে দেশে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা ছিলো প্রায় ১৪০০টি। তবে বর্তমানে চলচ্চিত্রের মন্দাভাবের কারণে সেটি এখন ৮০টিতে নেমে এসেছে। এরই মধ্যে আবার দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে দেশে লকডাউনের প্রভাব। লম্বা সময় ধরে প্রেক্ষাগৃহে কোনও সিনেমা না থাকায় মুখ থুবড়ে পড়েছে হল মালিকদের। এবার লোকসানের মুখে ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে রাজধানীর পুরনো সিনেমা হল অভিসার।

চলচ্চিত্রের মন্দাভাব এবং করোনাভাইরাসের ধাক্কায় ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে রাজধানীর টিকাটুলির মোড়ে ২৬ কাঠা জায়গাজুড়ে অবস্থিত অভিসার সিনেমা হল। আর্থিক সঙ্কট এড়াতে সেখানে নির্মাণ করা হবে কমিউনিটি সেন্টার। এমনটি গণমাধ্যমে জানিয়েছেন প্রেক্ষাগৃহের অন্যতম মালিক সফর আলী ভূঁইয়া।

এ প্রসঙ্গে সফর আলী ভূঁইয়া বলেন, প্রতি মাসে প্রায় ৪ লাখ টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে তাদের। তার মধ্যে লকডাউনের জেরে হল বন্ধ থাকায় আর কোনও পথ খোলা নেই। সেকারণে এক প্রকার বাধ্য হয়েই প্রেক্ষাগৃহ ভেঙ্গে কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, প্রেক্ষাগৃহের ব্যবসা করে বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনোভাবেই টিকে থাকা সম্ভব নয়। তবে ইজ্জতের খাতিরে ১ হাজার আসনের প্রেক্ষাগৃহটি ভেঙ্গে দেড়শ আসনের ছোট সিনেমা হল রাখার কথাও জানান সফর আলী।

জানা গিয়েছে, করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই পাঁচতলা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। কমিউনিটি সেন্টারের পাশাপাশি সেখানে ব্যাংক-বীমা ও সায়েন্টিফিক সরঞ্জামের দোকান ভাড়া দিবেন অভিসারের মালিক পক্ষ।

৫২ বছরের পুরনো সিনেমা হলটি ১৯৬৮ সালে ব্যবসায়ী কামাল হোসেনের হাত ধরে প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে ঋনের দায়ে ১৯৯২ সালে কে এম আর মঞ্জুর আর ও সফর আলী ভূইয়ার কাছে বিক্রি করেন তিনি। অবশেষে চলচ্চিত্রের মন্দাবস্থা এবং করোনা সঙ্কটে সেটিও ভেঙ্গে ফেলছেন তারা।

এই করোনাভাইরাসের প্রভাবে লোকসানে পড়ে দেশের অধিকাংশ হল মালিকরা প্রেক্ষাগৃহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন