Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

সুযোগের অপেক্ষায় পিসিবি : ইংল্যান্ডকে চায় পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

গত পহেলা এপ্রিল করাচিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। বহুল আলোচিত সিরিজটি মাঝপথেই থেমে যায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে। সেদিন থেকেই কার্যত ক্রিকেট নেই পাকিস্তানে। অবশেষে দেখা যাচ্ছে আলোর কিরণ। সীমিত ওভারের ক্রিকেট ফেরাতে মরিয়া পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। চলতি বছরে নির্ধারিত সূচী অনুযায়ী আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপ ও এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। যদি প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস আতঙ্ক থেকে মানবজাতির মুক্তি মেলে তবে বৈশি^ক এই দু’টি আসরই হওয়ার কথা। যদি তা না হয়, সেই সম্ভাবনাকেই সুযোগে পরিণত করতে চায় পিসিবি।
পিসিবির নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে পাকিস্তানের প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক ‘ডন’ দাবি করেছে, আসন্ন অক্টোবর-নভেম্বর মাসে (করোনার উপর নির্ভরশীল) তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ইংল্যান্ডেকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। পিসিবি আগামী জুলাই মাসে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ও সমান সংখ্যক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে পাকিস্তান দলকে ইংল্যান্ডে পাঠাতে রাজিও হয়েছে। যদিও সেটি পাকিস্তান সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে।
পত্রিকাটি আরও জানায়, করোনা পরবর্তি ক্রিকেট ফেরাতে পিসিবি নতুন পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে। জুনের ১০ তারিখে আইসিসির বিলম্বিত সভায় সিদ্ধান্ত আসতে পারে বিশ^কাপ আয়োজনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে। তবে ধারণা করা হচ্ছে, চলতি বছরে টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপ অনুষ্ঠিত হবে না। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এখনও পর্যন্ত বিশ^কাপের বিকল্প নিয়ে ঐক্যমতে আসতে পারেনি। এখানে আইপিএলকে বড় বাধা মনে করছেন অনেকেই। সূত্র আরও জানিয়েছে, বাংলাদেশের বিপক্ষে পাকিস্তানের সিরিজ এখনও শেষ হয়নি। সিরিজ শুরুর আগেই সেই সিরিজ নিয়ে কতটা পানি ঘোলা হয়েছে, তা নতুর করে মনে করিয়ে দেয়ার কিছু নেই। তার উপর বর্তমান উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এই সিরিজের ভবিষ্য নিয়েও আছে অনিশ্চিয়তা। তবে বাবর আজমদের বোর্ড এ নিয়েও ভেবেছে। তবে আইসিসির ১০ জুনের বৈঠকেই সিদ্ধান্ত আসতে পারে বড়সড়। সারাবিশে^ করোনা পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে সামনের দিনে ক্রিকেট কেমন হবে তার চিত্রটাই ফুটে উঠবে সেই মিটিংয়ে। পাকিস্তানের করোনাকালের কূটনীতি ও সুদুরপ্রসারী ভাবনা কতটা কর্যকর হতে পারে, তাও স্পষ্ট হবে সেদিনই।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পিসিবি


আরও
আরও পড়ুন