Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ২২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দাখিলের সময় ২ মাস বাড়লো

সরকারি কর্মকর্তাদের এসিআর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে সরকারি কর্মকর্তাদের ২০১৯ সালের এসিআর (বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন) ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষের দফতরে পৌঁছানোর সময়সীমা বাড়িয়েছে সরকার। গতকাল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে আদেশ জারি করেছে।

আদেশে বলা হয়, বিরাজমান বিশেষ পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের এসিআর দাখিল, অনুস্বাক্ষর ও প্রতিস্বাক্ষর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষের দফতরে এসিআর পৌঁছানোর সময় ৩১ মের পরিবর্তে আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হলো। এ বিষয়টি কেবল ২০১৯ সালের এসিআরের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে বলেও জানানো হয়েছে। সরকারি চাকরিজীবীদের প্রতিবছর এসিআর দাখিল করতে হয়। তার ভিত্তিতেই পদোন্নতি ও অন্য সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকেন তারা।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এসিআর দাখিলের ক্ষেত্রে কোন কর্মকর্তা নির্দিষ্ট সময়ের এক বছরের বেশি সময় পরে তার বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন জমা দিলে তা বাতিল বলে গণ্য করা হয়। এ ধরনের অনুবেদনে অনুবেদনকারী কর্মকর্তা বা প্রতিস্বাক্ষরকারী কর্মকর্তার স্বাক্ষর দেয়া যাবে না। দেরিতে অনুবেদন জমা দেয়া কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অসদাচরণের দায়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়।

অপরদিকে নির্দিষ্ট সময়ে অনুবেদন জমা দেয়ার পরও অনুবেদনকারী বা প্রতিস্বাক্ষরকারী কর্মকর্তা অনুবেদনের নথি এক বছরের বেশি সময় পরে সংরক্ষণকারী কর্মকর্তার (ডোসিয়ার) দফতরে পাঠালে, এর জন্য এসিআর জমাকারী কর্মকর্তার কোন দায় থাকবে না। এক্ষেত্রে তাকে দায় থেকে অব্যাহতি দিয়ে গড় নম্বর দিতে হবে।
বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন ঘষামাজা, কাটাছেড়া বা ফ্লুইড ব্যবহার করা যাবে না। তবে জরুরি প্রয়োজনে একটানে কেটে সংশোধনের পর সেখানে অনুস্বাক্ষর দিতে হবে। কোন কর্মস্থলে কোন কর্মকর্তা কমপক্ষে তিনমাস দায়িত্ব পালন করলে, ওই কর্মস্থলে তার নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ তার অনুবেদন স্বাক্ষর করতে এবং ডোসিয়ার কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাতে বলা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ