Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

ডাক্তার ফুটবলার আইনজীবী ব্যাংকার করোনায় নিহত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

প্রতিদিনই করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলছে। সরকারি হিসেবে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭০৯ জন। গতকালও নিহত হয়েছেন ৩৭ জন। করোনায় নিহতের তালিকায় প্রতিদিন যোগ হচ্ছে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নাম। গতকালও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দেশের প্রখ্যাত ইউরোলজিস্ট ডা. মনজুর রশীদ চৌধুরী, সাবেক ফুটবলার নূরুল ইসলাম নুরু, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক সদস্য মো. কবির চৌধুরী, অগ্রণী ব্যাংকের ব্যাংকার আবদুল মালেক, ন্যাশনাল ব্যাংকের কর্মকর্তা মো. বাশার। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

ডা. মনজুর রশীদ চৌধুরী : রাজধানীর আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল ইন্তেকাল করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট ছিলেন। ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি রাইটস অ্যান্ড রেসপন্সসিবিলিটির (এফডিএসআর) যুগ্ম সম্পাদক ডা. রাহাত আনোয়ার চৌধুরী জানান, করোনায় আক্রান্ত ডা. মনজুর রশীদ চৌধুরী গত তিন দিন ধরে হাসপাতালে ভেনটিলেশনে ছিলেন। এর আগে আরও ১১ জন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আর করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও চার চিকিৎসক।

নূরুল ইসলাম নুরু : করোনায় আক্রান্ত হয়ে দৌড় প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ের চ্যাম্পিয়ন, সাবেক ফুটবলার নুরুল ইসলাম নুরু ইন্তেকাল করেছেন। তিনি নওগাঁ শহরের কাপড়পট্টি এলাকায় নিজ বাসায় থাকতেন। নওগাঁর ডেপুটি সিভিল সার্জন মঞ্জুর এ মোর্শেদ জানান, ঈদের দুইদিন আগে তার জ্বরসহ করোনা উপসর্গ দেখা দেয়। এর পর তিনি কাপড়ের দোকান বন্ধ করে কোয়ারেন্টিনে চলে যান। ঈদের আগেই তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। গত ৩০ মে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসে। অতপর তিনি ইন্তেকাল করেন।

মো. কবির চৌধুরী : করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক সদস্য এবং চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি মো. কবির চৌধুরী চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সমপাদক এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন জানান, গত ৩০ মে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষার পর ফলাফলে তার করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। প্রবীণ আইনজীবী মো. কবির চৌধুরী আনোয়ারা উপজেলার বাসিন্দা।
মো. বাশার : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ন্যাশনাল ব্যাংকের কর্মকর্তা মো. বাশার রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তিনি সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট (এসএভিপি) পদবীর এ কর্মকর্তা দিলকুশা শাখায় কর্মরত ছিলেন। ন্যাশনাল ব্যাংকের ডিএমডি এস এম বুলবুল জানান, করোনায় মো. বাশারের মৃত্যুর কারণে গতকাল থেকে দিলকুশা শাখাটি আংশিকভাবে লকডাউন ঘোষণা করা হয়।
আবদুল মালেক : করোনায় আক্রান্ত হয়ে অগ্রণী ব্যাংকে কর্মরত আবদুল মালেক ইন্তোকাল করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন অগ্রণী ব্যাংক ঢাকার তেজগাঁও শাখায় কর্মরত ছিলেন। আবদুল মালেকের বাড়ি ফেনীর পরশুরাম উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের উত্তর ধনিকুন্ডা গ্রামে। করোনা সন্দেহে তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ফলাফল পজেটিভ আসায় ঈদের দুইদিন আগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বিভিন্ন ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৮ ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। এছাড়া এখন পর্যন্ত প্রায় ৬০ জন ব্যাংক কর্মকর্তা প্রাণঘাতী ভাইরাসে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।



 

Show all comments
  • এম রহমান ৩ জুন, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    মহান জনসেবকরা(তথাকথিত) কোথায়!!!!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

৪ জুলাই, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন