Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

করোনায় মৃত্যু চিকিৎসক-কাস্টমস কর্মকর্তার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও এক চিকিৎসক এবং কাস্টমস কর্মকর্তা। এ নিয়ে করোনায় দেশে ১৩ জন চিকিৎসকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান করোনায় আক্রান্ত চট্টগ্রামের মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক (মেডিসিন) ডা. এহসান (৪২)। চমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আফতাবুল ইসলাম বলেন, তার শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়ার পর চমেক হাসপাতালে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে বুধবার সকালে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে ভর্তি করানো হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেফটি রাইটস অ্যান্ড রেসপন্সসিবিলিটির (এফডিএসআর) যুগ্ম সম্পাদক ডা. রাহাত আনোয়ার চৌধুরী জানান, ডা. এহসান করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। পরে চিকিৎসায় তার লিউকেমিয়া সমস্যা ধরা পড়ে। ডা. এহসান কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ১৩ নম্বর চিকিৎসক। এর আগে, আরও ১২ জন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আর করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও চার জন চিকিৎসক।

বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন চট্টগ্রাম শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী বলেন, মানুষের চিকিৎসাসেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হন ওই চিকিৎসক। অত্যন্ত ভালো মানুষ ছিলেন। তার মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রামে সংগঠনটির করোনা সেলের প্রধান ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান জানান, চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সারেও ভুগছিলেন।
এদিকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের একজন রাজস্ব কর্মকর্তা মৃত্যুবরণ করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) জনসংযোগ কর্মকর্তা (সিনিয়র তথ্য অফিসার) সৈয়দ এ মু’মেন। তিনি বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টা ৫ মিনিটে রাজধানী ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই কর্মকর্তা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

সৈয়দ এ মু’মেন জানান, চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে কর্মরত ওই রাজস্ব কর্মকর্তার (সুপারিন্টেনডেন্ট) নাম জসীম উদ্দিন মজুমদার। তিনি স¤প্রতি এই হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছিলেন। এদিকে জসীম উদ্দিন মজুমদারের মৃত্যুর আগে সর্বশেষ ৩০ মে হিসেব অনুযায়ী, করোনা আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম বন্দর জেটির তিন কর্মচারী মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন কাস্টম হাউজ ও চট্টগ্রাম বন্দরের ৩৫ কর্মকর্তা ও কর্মচারী। যাদের মধ্যে ২১ জন বন্দরের এবং ১৪ জন কাস্টমসের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী।

এছাড়া এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, করোনা উপসর্গ নিয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন আরও অন্তত ৩০ জনের বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারী।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন