Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

ক্ষতির মুখে বাগান মালিক

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

“ধান লিচুতে ভরপুর উত্তরের জেলা দিনাজপুর” মৌসুমের শুরুতেই দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে বাজারে উঠতে শুরু করেছে লাল টসটসে রসালো বিভিন্ন জাতের মিষ্টি লিচু। এ জেলার লিচু সুস্বাদু হওয়ায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় নিয়ে যাচ্ছেন ব্যাবসায়ীরা। তবে পরিস্থিতির কারণে তুলনামূলক ভাবে পাইকারী বাজারে খদ্দের কম থাকায় এবার লিচুর দাম অনেকটাই কমে গেছে। ফলে ক্ষতির মুখে পড়েছেন এই এলাকার বাগান মালিকরা।

ফুলবাড়ী বাজারে মাদ্রাজী, বেদানা, বোম্বাই, লিচু বেচা-কেনা চলছে। পর্যায় ক্রমে, কাঠালি, চায়না, চায়না-৩ জাতের লিচু আসবে এমনটাই জানান খুচরা ব্যবসায়ীরা। খুচরা বাজারে মাদ্রাজী প্রতি শ’ বিক্রি হচ্ছে ১শ’ থেকে ১৩০ টাকায়, বোম্বাই প্রতি শ’ ১২০ টাকায়, বেদানা প্রতি শ’ ২৫০ থেকে ৩৫০ টাকা।

লিচু ব্যবসায়ী শফিকুল ও রায়হান বলেন,করোনার কারনে গত বছরের তুলনায় এবার লিচুর চাহিদা কম হওয়ায় দামও অনেক কম। এর মধ্যে লকডাউনসহ করোনার প্রভাবে বাজারে খদ্দের এর উপস্থিতি কম থাকায় এবারে ব্যবসায় লাভও কমে গেছে। একই কথা বলেন ফুলবাড়ীতে ফুটপাতে লিচু পসরা সাজানো একাধিক মৌসুমী ব্যবসায়ী।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এটিএম হামীম আশরাফ বলেন, ফুলবাড়ী উপজেলায় মোট ৬৮ হেক্টর জমিতে লিচুর বাগান রয়েছে। প্রতি হেক্টরে সাড়ে ৭ টন করে মোট ৪’শ ৭৬ মেট্রিক টন লিচু উৎপাদনের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ বছর বেদেনা, হাইব্রিড জাতের চায়না থ্রি ও চায়না ফোর জাতের লিচু ব্যাপকহারে চাষ হয়েছে। এছাড়াও দেশি জাতের মাদ্রাজি, বোম্বাই ও কাঁঠালি লিচুরও বাগান রয়েছে এই এলাকায়। ঝড়ের কারণে এবছর উপজেলায় ২৭ মেট্রিক টন লিচু ঝরে পড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে প্রায় তিনশ কৃষক। এদিকে বাগান মালিক চাষিরা যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয়,এজন্য বাজার জাতকরণের বিষয়েও সবরকম খোঁজ খবর রাখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাগান-মালিক
আরও পড়ুন