Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সম্পূর্ণ ত্রিপোলির নিয়ন্ত্রণ নিল তুর্কি সমর্থিত লিবিয়া সরকার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০২০, ৪:২৫ পিএম

তুরস্কের সমর্থনে লিবিয়া ও এর আশেপাশের সব এলাকার উপরে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করল লিবিয়ার জাতিসংঘ-স্বীকৃত জোট সরকার। বৃহস্পতিবার সরকারি সূত্রে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। বিদ্রোহী খলিফা হাফতারের সাথে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে যুদ্ধ করার পর অবশেষে নিজেদের অবস্থান সুরক্ষিত করতে সক্ষম হলো গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল অ্যাকর্ড (জিএনএ)।

জিএনএ’র বাহিনীর মুখপাত্র মোহাম্মদ নোনউ একটি ফেসবুক পোস্টে বলেছেন, ‘আমাদের বীর সেনারা বৃহত্তর ত্রিপোলির শেষ সীমা অবধি পুরো নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে।’

এক বছরেরও বেশি সময় পরে বুধবার জিএনএ বাহিনী রাজধানীর বেসামরিক বিমানবন্দরটি পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হন। প্রতিপক্ষের মিলিশিয়াদের সাথে লড়াইয়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পরে ২০১৪ সাল থেকে ত্রিপোলির দক্ষিণ উপকূলের এই বিমানবন্দরটি বন্ধ ছিল।

জিএনএর উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী সালাহ নমরুশ বলেছিলেন, ‘আমাদের বাহিনী ত্রিপোলির দেয়াল থেকে সন্ত্রাসী মিলিশিয়াদের তাড়া করে তাদের অগ্রযাত্রা চালিয়ে যাচ্ছে।’ তিনি ফেসবুকে বলেন, ‘তাদের কয়েকজন কমান্ডার রাজধানীর দক্ষিণ-পূর্বে ১৭০ কিলোমিটার (১১০ মাইল) অভ্যন্তরে বানির ওয়ালিদ বিমানবন্দরের দিকে পালাচ্ছেন।’

হাফতারের যোদ্ধারা এর আগে রাজধানির উপকন্ঠে চলে এসেছিল। রাজধানী দখলের এই যুদ্ধে শত শত মানুষের মৃত্যু হয় এবং ২ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়ে। এর পর তুর্কি ড্রোন এবং বিমান প্রতিরক্ষার সমর্থনে জিএনএ বাহিনী সাম্প্রতিক মাসগুলিতে হাফতার বাহিনীকে পিছু হঠিয়ে দিয়েছে। হাফতারকে প্রতিবেশী দেশ মিশর এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত ও রাশিয়া সমর্থন করে।

লিবিয়ার বিষয়ে জানুয়ারিতে বার্লিনের একটি সম্মেলনে বৈদেশিক হস্তক্ষেপের অবসান ঘটিয়ে এবং বহুল কাঙ্খিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞাকে সমর্থন করে হওয়া চুক্তির প্রতি সম্মান জানাতে জাতিসংঘ বাইরের শক্তিগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

তুরস্ক ও রাশিয়ার দ্বারা যুদ্ধবিরতি বারবার লঙ্ঘন হওয়ার পরে গত বুধবার থেকে দুই দেশের মধ্যে পুনরায় যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। জাতিসংঘ এটিকে একটি ‘ইতিবাচক’ পদক্ষেপ হিসাবে স্বাগত জানিয়েছে।

জাতিসংঘের অন্তর্বর্তী রাষ্ট্রদূত স্টিফানি উইলিয়ামস হাফতার বাহিনীর প্রতিনিধিত্বকারী পাঁচ সদস্যের একটি দলের সাথে সাক্ষাত করেছেন। জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেছেন, জিএনএর সাথে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সূত্র: এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিবিয়া


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ