Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জেদ্দায় কারফিউর সময় বাড়লো

সব মসজিদে নামাজ আদায় নিষিদ্ধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় আজ শনিবার থেকে ২০ জুন পর্যন্ত ১৫ দিনের জন্য সউদী আরবের জেদ্দায় কারফিউ আরো কঠোর করে সময় পরিবর্তন করা হয়েছে। বিকেল ৩টা থেকে কারফিউ শুরু হয়ে সকাল ৬টায় শেষ হবে। এর আগে রাত ৮টায় কারফিউ শুরু হত। এ সময়ের মধ্যে সরকারি-বেসরকারি অফিস, আদালতসহ মসজিদে নামাজ, রেস্তোরাঁ-ক্যাফে ও ৫ জনের বেশি জমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট, বাস ও ট্রেন চলাচল করবে এবং কারফিউ বহিভর্‚ত সময়ে পবিত্র মক্কায় প্রবেশ ও বের হওয়া যাবে। কারফিউকালে সামাজিক দ‚রত্ব বজায় না রাখলে মোটা অংকের জরিমানা গুনতে হতে পারে এমনটা জানিয়েছে সউদীর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
এদিকে প্রায় আড়াই মাস পর গতকাল জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে সউদী আরবে। বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গত ১৫ মার্চের পর দেশটিতে শপিংমলসহ সব অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক কার্যক্রমের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার। সেই সঙ্গে দেশটির সব মসজিদে নামাজ আদায় করার ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। শুধু দুই পবিত্র মসজিদ; মসজিদে হারাম ও মসজিদের নববিতে সীমিত পরিসরে জুমার নামাজসহ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ চালু ছিল। তবে সর্বসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ ছিল।
উল্লেখ্য, সউদী আরবে এ পর্যন্ত ৯৫ হাজার ৭৪৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে যাদের মধ্যে মারা গেছেন ৬৪২ জন। গতকাল পর্যন্ত তিন দিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক (৩০, ৩২ ও ৩১) কোভিড-১৯ রোগীর মৃত্যুর প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সূত্র : সউদী গেজেট।



 

Show all comments
  • Hossain Ahamed ৬ জুন, ২০২০, ১:২৭ এএম says : 0
    কারণ, তারা তাদের জনগণকে ভালোবাসেন। তারা সচেতন। আল্লাহ রোগ থেকে সাবধান থাকতে বলেছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Fayzur Rahman ৬ জুন, ২০২০, ১:২৮ এএম says : 0
    আমাদের দেশের একমাত্র সমস্যা আমরা ধর্মের চেয়ে ধর্মান্দ্বতা বেশি বিশ্বাস করি। অথচ আমাদের দেশের থেকেও বড় বড় আলেম,ওলামা ঐ দেশে আছে, কিন্তু বাঙ্গালী মনে করে তাদের থেকে আমরাই বেশি বুঝি। এই বেশি বুঝাবুঝি তে দেশ আজকে ডুবতে বসছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Lima Aktar ৬ জুন, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
    বাংলাদেশে ও কারফিউ জারি করা হোক
    Total Reply(0) Reply
  • Deluiar Hossain ৬ জুন, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
    আল্লাহ্ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন
    Total Reply(0) Reply
  • Yusuf Hossain Mukto ৬ জুন, ২০২০, ১:৩০ এএম says : 0
    রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়াসালাম বলেন:- কোনো বান্দা যদি মহামারি আক্রান্ত এলাকায় থাকে এবং নিজ বাড়িতে ধৈর্য্য সহকারে, সাওয়াবের নিয়াতে তা বিস্বাস বুকে নিয়ে আবস্থান করে যে,আল্লাহ তা'আলা তাকদিরে যা চৃড়ান্ত রেখেছেন, তার বাইরে কোনো কিছু তাকে আক্রান্ত করবে না,তাহলে তার জন্য রয়েছে শহিদের সমান সাওয়াব। মুগনাদে আহমদ হাদীস নং :২৬১৮২
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

৪ জুলাই, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন