Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

রাজশাহী বিভাগে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৭ জুন, ২০২০, ২:০২ পিএম

রাজশাহী বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শনিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৮৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন তিনজন। আর সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন আরও ৩ করোনা রোগী। দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের পরিচালক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য গণমাধ্যমকে এ কথা জানান।
তিনি জানান, বিভাগে এ পর্যন্ত ১২৮৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৩২১ জন। বিভাগের আট জেলার মধ্যে ছয় জেলায় মারা গেছেন ১৪ জন। এর মধ্যে রাজশাহীতে তিনজন, নওগাঁয় দুইজন, নাটোরে একজন, বগুড়ায় চারজন, সিরাজগঞ্জ দুইজন ও পাবনায় দুইজন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী বিভাগে ৮৩ জনের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে ৫২ জনের করোনা ধরা পড়েছে বগুড়ায়। আর পাবনায় ১৯ জন। এছাড়াও সিরাজগঞ্জে ছয়জন, রাজশাহীতে তিনজন ও নাটোরে তিনজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একদিনে মারা যাওয়াদের মধ্যে পাবনার দুইজন ও বগুড়ার একজন।
তিনি বলেন, বিভাগের আট জেলার মধ্যে এ পর্যন্ত বগুড়ায় ৫৬৯ জন, জয়পুরহাটে ২০৫ জন, নওগাঁয় ১৪৬ জন, রাজশাহীতে ৭৫ জন, নাটোরে ৬৪ জন, সিরাজগঞ্জে ১০০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫৬ জন এবং পাবনায় ৭২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত করোনা জয় করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে রাজশাহীতে ১৩ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৩ জন, নওগাঁয় ৯১ জন, নাটোরে ১১ জন, জয়পুরহাটে ৮০ জন, বগুড়ায় ৫০ জন, সিরাজগঞ্জে ১৪ জন এবং পাবনায় ৮ জন।
তিনি বলেন, রাজশাহী বিভাগে তিনটি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। এর মধ্যে রাজশাহীতে দুইটি ও বগুড়ায় একটি। এছাড়াও অতিরিক্ত নমুনাগুলো ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে। প্রতিদিন নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা বাড়ছে।
এদিকে রাজশাহী বিভাগের মধ্যে পুরোপুরি লকডাউন বলা হচ্ছে বগুড়া, জয়পুরহাট, নওগাঁ, নাটোর ও রাজশাহীকে। এই বিভাগে আংশিক লকডাউন চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এ বিভাগে করোনা পরিস্থিতি অবনতির দিকে আছে। মানুষের সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। করোনা মোকাবিলায় মানুষকে সচেতন হতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ