Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

সঙ্ঘাতোত্তর লিবিয়ার জিএনএ সরকারের প্রতি সহযোগিতা বাড়াবে তুরস্ক

রয়টার্স | প্রকাশের সময় : ৮ জুন, ২০২০, ২:০৬ পিএম

দেশটির বিরোধ শেষ হলেই তুরস্ক জ্বালানি ও নির্মাণ সংক্রান্ত নতুন চুক্তি নিয়ে লিবিয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃত সরকারের প্রতি সহযোগিতা বাড়িয়ে তুলবে, প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিনের এক বরাতে গত রোববার একথা বলা হয়েছে।
তুরস্ক ফায়েজ আল সেররাজের জিএনএকে সমর্থন করে এবং গত বছর একটি সহযোগিতা চুক্তিতে স্বাক্ষর করার পরে দেশটি সামরিক সহায়তা দিয়ে আসছে। উভয়ে পূর্ব ভূমধ্যসাগরে একটি সমুদ্রসীমা নির্ধারণ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে যা গ্রিস এবং অন্যান্য আঞ্চলিক শক্তিগুলো প্রত্যাখ্যান করে। বৃহস্পতিবার আঙ্কারায় সেররাজের সাথে আলোচনার পরে প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান খালিফা হাফতারের পূর্ব-ভিত্তিক লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মির (এলএনএ) বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে সাম্প্রতিক লব্ধ এলাকা বন্ধ করতে জিএনএ-র প্রতি সমর্থন দেয়ার জন্য তুরস্কের সমর্থন বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ত্রিপোলিতে জিএনএ’র বিরুদ্ধে ১৪ মাসের হামলা চালিয়েছে এলএনএ।
ইব্রাহিম কালিন বলেছেন, যুদ্ধ শেষ হওয়ার পরে জিএনএর সাথে তুরস্কের সহযোগিতা অন্যান্য অঞ্চলে প্রসারিত হতে পারে। তিনি মিল্লিয়াত ডেইলিকে বলেন, ‘রাস্তা থেকে সেতু, হাসপাতাল, হোটেল, আবাসন পর্যন্ত ক্ষেত্রে আমাদের ইতোমধ্যে একটি সহযোগিতার ইতিহাস রয়েছে। যুদ্ধের কারণে এগুলো বন্ধ হয়ে যায়। একই জাতীয় পরিস্থিতি জ্বালানির ক্ষেত্রেও সত্য। তুরস্ক যেমন বিশ্বের অনেক অংশ জুড়ে সহযোগিতা করছে পারে, তেমনি লিবিয়াতেও তা করতে পারে। তবে সবার আগে প্রয়োজন রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা’।
তুরস্ক বারবার হাফতারের সমর্থক রাশিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং মিসরকে তাদের সমর্থন বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করেছে। তুরস্কের হস্তক্ষেপে উত্তর-পশ্চিমের পাদদেশ থেকে এলএনএকে সরিয়ে দেয়ার পরে শনিবার মিসর যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব করেছিল। কালিন বলেন, হাফতারের সাম্প্রতিক যুদ্ধক্ষেত্রের ক্ষতিগুলো দেখিয়েছে যে, তিনি একটি অবিশ্বাস্য অভিনেতা এবং তার ‘সময় শেষ’ হয়েছে। তিনি আরও যোগ করেন যে, তার সহযোগীরা বিকল্প খুঁজছেন। বুধবার রাশিয়ার মস্কোতে জিএনএ’র সাথে আলোচনা হয়েছে।
কালিন বলেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য আছে, তারা হাফতারকে ছাড়াই সমাধান তৈরির দিকে তাকিয়ে রয়েছে। তারা সকলেই যুক্তরাষ্ট্রসহ আমাদের প্রেসিডেন্টের দৃষ্টিভঙ্গির দিকে এগিয়ে চলেছে ... সেররাজের সরকারের সাথে সম্পর্ক স্থাপনের জন্য মার্কিন প্রশাসনের একটি সাধারণ সুযোগ রয়েছে’।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিবিয়া


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ