Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ফুটবলার আজাদ খুনের জের বোয়ালখালীতে এক মেম্বারকে জুতাপেটা ও গণধোলাই

প্রকাশের সময় : ২৬ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা ঃ চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বহুল আলোচিত ফুটবলার আজাদ খুনের আসামী ইউপি মেম্বারকে জুতাপেটা ও গণধোলাই দিয়েছে উত্তেজিত জনতা। গতকাল সোমবার দুপুর ১২টার দিকে পোপাদিয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত মেম্বার কিশোরভঞ্জ উপজেলা পরিষদে ইউপি সদস্যদের সাথে শপথ নিতে অনুষ্ঠানে আসলে জুতাপেটা ও গণধোলাইয়ের ঘটনা ঘটে। এসময় দৌড়ে সে নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে ঢুকে গেলে কোন রকমে প্রাণে রক্ষা পায়। খবর পেয়ে বোয়ালখালী থানা পুলিশের একটি দল এসে তাকে উদ্ধার করে।
জানা যায়, ২০১১ সালের ৩০ অক্টোবর রাতে উপজেলার পোপাদিয়া ইউনিয়নের তালতলে কয়েকজন বন্ধুর দাওয়াতে একটি শ্যামা পূজার অনুষ্ঠানে যায় কৃতি ফুটবলার আমিনুল ইসলাম আজাদ। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুছলেম উদ্দিন আহমেদ অনুসারী কানুনগোপাড়া স্যার এটি সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জয় ভঞ্জের নেতৃত্বে কিশোর ভঞ্জ, শিমুল ভঞ্জসহ আরো ৭/৮ জন সন্ত্রাসী আজাদকে উপর্যুপরি কিরিচ-লোহার রটসহ বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র দিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে পুকুরে ফেলে দেয়। খবর পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করে আজাদের পরিবার ও এলাকাবাসী। এসময় এলাকায় উত্তেজনা, ক্ষোভ ও খুনিদের শাস্তির দাবীতে মিছিল, মিটিং, মানববন্ধন আয়োজন করা হয়। ঘটনার পরদিন নিহত আজাদের মা বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করলেও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের আশ্রয়ে-প্রশ্রয়ে ও ক্ষমতার দাপটে আসামীদের কিছুই হল না দীর্ঘ ৫ বছরেও। ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে সেই কষ্ট আজ ক্ষোভে পরিণত হয়েছে। সরকারি দলের আশ্রয়ে থাকা খুনি ও চালা-চামুন্ডুদের কোন বিচার না হওয়ায় তাদের দু’সাহস ও অবৈধ কর্মকা- চালিয়ে যাচ্ছে এবং খুনের মামলা থাকলেও এলাকায় ওপেন চলা-ফেরা করে আসছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল সোমবার দীর্ঘদিনের জমে থাকা দুঃখ-ক্ষোভ নিয়ে আবারো আজাদ হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন করার সময় শপথ নিতে আসা খুনের আসামী কিশোর ভঞ্জ সামনে পড়লে উত্তেজিত জনতা জুতাপেটা ও গণধোলাই দেয়। পরে জনরোষ থেকে প্রাণ রক্ষার্থে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কক্ষে ইউপি সদস্য অবস্থান নেন। বেলা ১টার দিকে পুলিশি নিরাপত্তায় বের হতে চাইলে আবারো পুলিশের সাথে বাক-বিত-ায় জড়িয়ে পরে জনতা। বোয়ালখালী থানার সেকেন্ড অফিসার মোস্তাক আহমেদ, এসআই আবুল খায়ের, পীযুষ চন্দ্র সিংহ, এএসআই শাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গাড়িতে করে জুতাপেটা ও গণধোলাইয়ের শিকার আটকে পড়া ইউপি সদস্যকে উদ্ধার করে বাড়ি পৌঁছে দেয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবলার আজাদ খুনের জের বোয়ালখালীতে এক মেম্বারকে জুতাপেটা ও গণধোলাই
আরও পড়ুন