Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

মির্জাপুরে নিজের বাসায় কোচিং করানোর অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের জরিমানা

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০২০, ৬:১৯ পিএম

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাসায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে কোচিং করানোয় বাইমহাটী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনে আরার কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।
বুধবার আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন এ জরিমানা করেন।
এলাকাবাসী জানান, সরকারি নিয়ম না মেনে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও হোসনে আরা দীর্ঘ দিন ধরে তার বাসায় কোচিং ক্লাস চালিয়ে আসছিলেন। গোপন খবরে ভ্রাম্যমান আদালত বুধবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে প্রধান শিক্ষক হোসনে আরার বাসায় যান। সেখানে তিনি দেখতে পান তাঁর চারতলা বাসার পাশের একটি রুমে শিক্ষার্থীদের বসিয়ে কোচিং করানো হচ্ছে। এ সময় শিক্ষার্থীরা বেঞ্চে গাদাগাদি করে বসা ছিল। হোসনে আরাসহ অধিকাংশের মুখেই মাস্ক ছিল না। পরে ভ্রাম্যমান আদালত তাঁকে জরিমানা করেন।
প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা সরকারি নিয়মসহ সহজেই কাউকে মানতে চান না বলে অভিযোগ রয়েছে। তিনি সবসময়ই তাঁর নিজের খেয়াল খুশিমত কাজ করেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বেধড়ক পেটানোর অভিযোগ রয়েছে। প্রশাসনের কর্তাদের কাছে পিটুনী খাওয়া শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা অভিযোগ করলে তিনি ক্ষমা চেয়ে পার পেয়ে যান।
এলাকাবাসী জানান, তাঁর বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তার কাছে প্রাইভেট না পড়লে কিংবা কোচিং না করলে কাউকেই তিনি ভাল চোখে দেখেন না। অন্য ক্লাসের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ালেও বিশেষ করে চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলক কোচিং করতে হয়। অন্য ক্লাসের কেই বাদ থাকলেও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোন ছাড় দেন না তিনি। তিনি কোচিং ফি বাবদ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রতিমাসে ২ হাজার টাকা করে আদায় করেন বলে অভিভাবকেরা জানিয়েছেন। পঞ্চম শ্রেনিতে ৭১জন শিক্ষার্থী রয়েছে।
এ ব্যাপারে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. লুৎফর রহমান বলেন, জরিমানা করার বিষয়টি আমাদের জন্য দুর্নামের। ওনাকে কোচিং না করানোর অনুরোধ করলেও তিনি মানেননি।
প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা বলেন, ব্যাংক থেকে লোন তুলে একটা বিল্ডিং করেছি। আমি যা বেতন পাই তা লোন বাবদ কেটে নেয়। সংসার চালাতে আমি প্রাইভেট পড়াই।
উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন বলেন, সরকারি নিয়ম না মানায় তাঁকে জরিমানা করা হয়েছে। এরপরও তিনি নিয়ম না মানলে তার বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জরিমানা


আরও
আরও পড়ুন