Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সরিষাবাড়ীতে অপকর্ম করতে গিয়ে ইউপি মেম্বার আটক, গণধোলাই

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ জুন, ২০২০, ৬:১০ পিএম

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে তোজাম্মেল হোসেন বকুল (৪৫) নামে এক ইউপি মেম্বার অপকর্ম করতে গিয়ে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন। পরে জনতা তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বগারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত তোজাম্মেল হক বকুল ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ইউপি সদস্য ও তার প্রেমিকা চামেলি বেগম (৩০) থানা হাজতে আটক ছিলেন। তাদের জেলহাজতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছিল।
এদিকে তাদের সেক্সভিডিও এলাকায় মানুষের মুঠোফোন ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়ে গেছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বগারপাড় গ্রামের বাসিন্দা ও স্থানীয় ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হোসেন বকুলের সাথে একই গ্রামের পার্শ্ববর্তী পাড়ার রাজমিস্ত্রি আফজাল হোসেনের স্ত্রী চামেলি বেগমের মধ্যে পরকীয়া প্রেম গড়ে উঠে। এক কন্যার জননী চামেলি বেগমের বাড়ি নির্জন থাকায় ইউপি সদস্য তোজাম্মেল প্রায়ই ওই বাড়িতে গিয়ে চামেলির সাথে অপকর্মে লিপ্ত হতেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় কানাঘুষা শুরু হলেও তার প্রভাবে কেউ মুখ খোলার সাহস পেতেন না। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে তোজাম্মেল ওই বাড়িতে ঢুকে ঘরের বাতি নিভিয়ে চামেলির সাথে অপকর্মে লিপ্ত হন। এসময় আশেপাশের লোকজন টের পেয়ে অতর্কিত ঘরে ঢুকে বিবস্ত্র ও আপত্তিকর অবস্থায় দু’জনকে আটক করে। এসময় জনতা তোজাম্মেলকে ধরে গণপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে ও তার প্রেমিকাকে আটক করে শনিবার ভোর ৪টার দিকে সরিষাবাড়ী থানা হাজতে এনে রাখে।
এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু মো. ফজলুল করীম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযুক্ত ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হোসেন বকুল দীর্ঘদিন ধরে ওই নারীর সাথে অপকর্মে লিপ্ত হতেন- বলে জানতে পেরেছি। এলাকাবাসীর তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকেসহ তার প্রেমিকাকে আটক করে থানা হাজতে রাখা হয়েছে।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের ও জেলহাজতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছিল। ইউপি সদস্যকে অপকর্ম অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলায় একটি সেক্সভিডিও এবং কিছু বিবস্ত্র ছবি এলাকার মানুষের হাতে হাতে ঘুরছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে এসব ভাইরাল হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
এ ব্যাপারে ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামস উদ্দিনের বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে চেষ্টা করা হলেও তা বন্ধ থাকায় সম্ভব হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরকীয়া

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ