Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

অতিবৃষ্টিতে ভুট্টার ক্ষতি

দিশেহারা কৃষক : পোল্ট্রি ফিড তৈরিতে বাড়বে আমদানি

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১২:১২ এএম, ১৪ জুন, ২০২০

বর্ষার আগেই বর্ষণে সারাদেশে খরিফ মৌসুমের ভুট্টার জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনেক স্থানে বৃষ্টির পানি জমে ভুট্টার ক্ষেত পুরো নষ্ট হয়ে গেছে। এর ফলে কৃষক একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। অনেক চাষি ঋণ নিয়ে জমিতে ভুট্টার চাষ করেছেন। কিভাবে ঋণ পরিশোধ করবেন সে চিন্তায় তারা দিশেহারা।
ভুট্টা লাভজনক হওয়ায় সারাদেশে গত কয়েক বছর ধরে চাষাবাদ বাড়েছে। কৃষি পরিসংখ্যান বর্ষগ্রন্থের তথ্য অনুযায়ী দেশে রবি ও খরিফ মৌসুম মিলে ১০ লাখ একর জমিতে ভুট্টা চাষ হয়। রবি মৌসুমে প্রায় সাড়ে ৯ লাখ একর এবং খরিফ মৌসুমে প্রায় দেড় লাখ একর জমিতে ভুট্টার চাষ হয়।

পোল্ট্রি ফিড ও বেকারি ফ্যাক্টরিতে ভুট্টার চাহিদা বেশি। পোল্ট্রি ফিড তৈরি করতে যে সমস্ত উপাদান লাগে তার শতকরা ৬০ ভাগের বেশি লাগে ভুট্টা। পোল্ট্রি খাতের ফিডে বছরে ভুট্টার চাহিদা প্রায় ৫০ লাখ মেট্রিক টন। দেশে দুই মৌসুম মিলে ৪০ থেকে ৪৫ মেট্রিক টন ভুট্টা উৎপন্ন হয়। সে হিসাবে চাহিদা অনুযায়ী ভুট্টা উৎপাদনে এখনো ঘাটতি রয়েছে। অতি বৃষ্টিতে ভুট্টা ক্ষেত নষ্ট হওয়ায় ঘাটতি আরও বেড়ে যাবে। আর পোল্ট্রি ফিড তৈরির জন্য এবার আমদানি বেড়ে দামের ওপর প্রভাব পড়বে।

বগুড়া, নওগাঁ, দিনাজপুর, রংপুর ও ঝিনাইদহ এলাকায় ভুট্টার চাষ বেশি হয়। এসব এলাকায় এবার রবি মৌসুমে অনুক‚ল আবহাওয়া থাকায় ভুট্টার ভাল ফলন হয়েছে। নভেম্বর-ডিসেম্বর থেকে রবি মৌসুমে ভুট্টার চাষ শুরু হয়। যা কৃষকের ঘরে উঠতে সময় লাগে ৫ থেকে ৬ মাস। খরিফ মৌসুমের চাষ শুরু হয় এপ্রিল মে থেকে। এ আবাদ উঠতে মোটামুটি সময় লাগে ৪ থেকে ৫ মাস।

বগুড়ায় এবার খরিফ মৌসুমে ৬৬০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ হলেও অকাল বর্ষণে নষ্ট হয়ে গেছে। বিশেষ করে বগুড়া সদরে ভুট্টার জমি সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। বগুড়া সদরের শাখারিয়া ইউনিয়নের গোপাল বাড়ি গ্রামের নুরুল ইসলামের ৩ বিঘা জমির ভুট্টা বৃষ্টির পানি জমে নষ্ট হয়ে গেছে। নুরুল ইসলাম জানিয়েছেন, এই ৩ বিঘা জমিতে তিনি ঋণ করে ভুট্টা চাষ করেছেন। এ ফসল নষ্ট হওয়ায় এবার তাকে পথে বসতে হবে।

বগুড়া কৃষি বিভাগের তথ্যমতে, ২ যুগ আগে বগুড়ার ধুনট উপজেলার চরাঞ্চলে শুরু হয় ভুট্টার চাষ। পরে কয়েকটি পোল্ট্রি ফিডের কারখানা গড়ে ওঠার পাশাপাশি বেকারিগুলোতে গম ও ভুট্টার মিশ্রণে তৈরি আটা-ময়দার চাহিদা হওয়ায় ভুট্টার চাহিদা বৃদ্ধি পায়। সে সঙ্গে চাষাবাদও সম্প্রসারিত হয়। বগুড়ার প্রতিটি উপজেলায় চাষ হচ্ছে ভুট্টার ।

বগুড়ার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক শাহাদাত জামান জানান, বগুড়ায় রবি ও খরিফ মৌসুমে ভুট্টার চাষ হয়ে থাকে। রবি মৌসুমে আবহাওয়া অনুক‚ল থাকায় এবার ভুট্টার বাম্পার ফলন হয়েছে। খরিফ মৌসুমে অতি বৃষ্টিতে নিচু এলাকার কিছু জমি নষ্ট হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সহায়তা দেয়ার ব্যাপারে তিনি আশ্বাস দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন