Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৮ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

মীরসরাইয়ে কয়েকটি সড়কের বেহালদশা সড়ক নয় যেন চাষ দেয়া জমি

প্রকাশের সময় : ২৭ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা : মীরসরাই উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের জনগুরুত্বপূর্ণ কিছু সড়কের যেন অভিভাবক নেই। দীর্ঘ বছরের পর বছর এসব সড়ক সকলের কাছেই অবহেলিত হয়ে আসছে। ভোট এলেই এসব সড়ক ঠিক করে দিবেন বলে প্রার্থীরা ভোট নিয়েই সাড়া। এর পর আর খুঁজে পাওয়া যায় না প্রতিশ্রুতি প্রদানকারী প্রার্থীদের।  উপজেলার ১ নম্বর করেরহাট ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ অলিনগর সড়কের পুরো ১ কিলোমিটার সড়কের চিত্র দেখলে মনে হবে এটি চাষ দেয়া জমি, স্থানীয় জনসাধারণ সড়কটি সংস্কারের দাবি জানাচ্ছেন বছরের পর বছর ধরে।
একই ইউনিয়নের মধ্য জয়পুর পূর্ব জোয়ার গ্রামের আবদুল জব্বার রাস্তাটি যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুলের ছাত্রছাত্রীসহ হাজার হাজার মানুষ। ফলে ওই রাস্তা দিয়ে এলাকার জনসাধারণ ও যানবাহন একেবারে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। যে কোন সময় এই রাস্তায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এতে জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। স্থানীয় চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন বলেন, আমি মাত্র দায়িত্বগ্রহণ করেছি, এসব রাস্তাঘাট শীঘ্রই সংস্কারের সকল উদ্যোগ নেয়া হবে।
উপজেলার ঐতিহ্যবাহী আবুতোরাব সড়কের কিছু স্থানসহ আবুতোরাব বাজারের প্রবেশমুখে সড়কে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ার কারণে বৃষ্টিতে গর্তে পানি জমে যায়। এতে করে জনসাধারণের দুর্ভোগের শেষ নেই। এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান কবির নিজামী বলেন, এই বিষয়ে আমরা সড়ক বিভাগকে জানিয়েছি, আশা করছি দ্রুত সংস্কার করা হবে।
জোরারগঞ্জ বাজারের উত্তরে ছুঁটি খাঁ মসজিদের পূর্বপাশে যে রাস্তাটি বয়ে গেছে সোনাপাহাড়ের দিকে। এক সময় এক মৌসুমেই চরম দুর্ভোগের নাম ছিলো এই সড়কটি। কেবল বর্ষাকালে। কিছু কিছু অংশে হাঁটু পরিমাণ কাদা মাড়িয়েই পথিকের আসা-যাওয়া হতো। অন্য মৌসুমের অবস্থা অন্তত এই সময় থেকে ঢের ভালো ছিলো। এই সড়ক কেবল জনচলাচলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক দুটোর (পুরাতন এবং বাইপাস) মধ্যে সংযোগ সড়কও এটি। প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষের ব্যবহারের এই সড়ক নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং সরকার উদাসীন।  উপজেলার মীরসরাই ফটিকছড়ি সংযোগ সড়কটি দিয়ে সড়ক বিভাগ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করার কথা জানিয়েছে। কিন্তু মীরসরাই পৌরসভার কলেজ রোডের সম্মুখস্থলে কিছু কাজ হবার পর অবশিষ্ট অংশের আমবাড়িয়া অংশ থেকে শুরু করে ফটিকছড়ির সংযোগস্থল নারায়ণহাট পর্যন্ত এখনো কাজ হবার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এই বিষয়ে সড়ক বিভাগের চট্টগ্রামের নির্বাহী প্রকৌশলী রাশেদুর রহমান জানিয়েছিলেন এই সড়কটি টেন্ডার হয়ে গেছে। কাজ শুরু হবে শীঘ্রই কিন্তু  গতকাল (মঙ্গলবার) পর্যন্ত এই সড়কে জনদুর্ভোগের অন্ত নেই। বিশাল বিশাল গর্ত আর ভাঙাচোরা সড়ক দিয়ে বিভিন্ন প্রকার যানবাহন এখন রীতিমতো দুর্ঘটনাকবলিত হচ্ছে। দিনে দিনে বাড়ছেই ভোগান্তি। এলাকাবাসী অবিলম্বে এসব জনপদের ভোগান্তির অবসান চায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ