Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

করোনাকালে যশোরে বেড়েছে আত্মহত্যা

১১ দিনে ১৪ জন

যশোর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাকালে হতাশা, অস্থিরতা, অসুস্থতা ও পারিবারিক কলহসহ নানা কারণে যশোরে আত্মহত্যার ঘটনা বেড়েছে উদ্বেগজনক হারে। গত ৫-১৫ জুন, এই ১১দিনে আত্মহত্যা করেছেন ১৪ জন। এর মধ্যে রয়েছেন ডাক্তারের স্ত্রী, ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থী ও গৃহবধূ।
হাসপাতাল ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১৫ জুন যশোরের অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. দীপাঞ্জন সাহার স্ত্রী শর্ণালী সরকার (২২) সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেন। তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ গতকাল সোমবার বিকালে যশোর ২৫ বেড হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। যশোরে কর্মরত রফিকুল ইসলাম (৩৫) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। ১২ জুন তিনি খুলনা শেখ আবু নাসের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এছাড়া ঝিকরগাছা উপজেলার মাগুরা গ্রামের নারায়ণ চন্দ্রের স্ত্রী সাধনা রানী (৬০), সদর উপজেলার হৈবতপুর ইউনিয়নের কেসমতপুর গ্রামের ইউসুফ উদ্দিনের মেয়ে সানজিদা আক্তার (১৬), শহরের নীলগঞ্জ তাতীপাড়ার ফয়সাল আহমেদ সুজনের স্ত্রী ইতি খাতুন (২০), অভয়নগর উপজেলার দেয়াপাড়া গ্রামের আব্বাস মোল্লার ছেলে ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম (২৫), বাঘারপাড়া উপজেলার রায়পুর গ্রামের সাহিদুল ইসলামের মেয়ে উর্মি খাতুন (২১), ভায়না গ্রামের মৃত মোজ্জাম্মেল হকের ছেলে ইমামুল হক (৪৫), মণিরামপুর উপজেলার ঢাকুরিয়া গ্রামের আব্দুল আজিজ মোল্লার ছেলে হারুনার রশিদ (৪৫), সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নের জিরাট গ্রামের মনোয়ারা খাতুন (৭০), ডাকাতিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী সাজেদা খাতুন (৩৩), অভয়নগর উপজেলার পাঁচকবর গ্রামের নাসিম হোসেনের মেয়ে শামীমা খাতুন (১৩), কেশবপুরের গৃহবধূ (২৮) ও শার্শার গোগা ইউনিয়নের হরিশচন্দ্রপুর গ্রামের এরশাদ আলীর স্ত্রী জান্নাতী খাতুন (২৫) কীটনাশক পানে ও গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।
এ প্রসঙ্গে যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের সাইকো সোস্যাল কাউন্সিলর মো. মুশফিকুর রহমান বলেন, মনের সঙ্গে লড়াই করে পরাজিত হলেই একজন মানুষ আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। তিনি বলেন, একথা তো সত্যি যে, ভয়ঙ্কর করোনাভাইরাসের প্রভাবে চারপাশের লোকজনের মাঝে হতাশা ও অস্থিরতা বেড়েছে। তাছাড়া পারিবারিক কলহসহ অন্যান্য কারণও আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন