Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চীনা পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে সর্বভারতীয় ব্যবসায়ী সংগঠন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০২০, ২:১৭ পিএম

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনা সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর চীনের উৎপাদিত পণ্য বর্জনের আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের ব্যবসায়ীরা। সর্বভারতীয় ব্যবসায়ী সংগঠন কনফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি) বলিউড ও ক্রিকেট তারকাদের প্রতি এক খোলা চিঠিতে চীনা পণ্য বর্জনের আহ্বান জানিয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।
এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সিএআইটি যাদের প্রতি এ আহ্বান জানিয়েছে তারা হলেন- অমিতাভ বচ্চন, অক্ষয় কুমার, মাহেন্দ্র সিং ধোনি, শচিন টেন্ডুলকার।
চীনের পণ্য বর্জনের ডাকের এই প্রচারণার নাম ব্যবসায়ীরা দিয়েছেন, ‘হামারা সামান- হামারা আভিমান’।
সিএআইটি একা নয়, চীনা পণ্যের বিরুদ্ধে কাজ করছে ভারত সরকার। চীনা প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত সরঞ্জামের প্রতি নির্ভরশীলতা কমানোর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বেসরকারি কম্পানিগুলোকে বলা হবে।
৭ কোটি ব্যবসায়ী ও ৪০ হাজার বাণিজ্যিক সংস্থার প্রতিনিধিত্বকারী হিসেবে দাবি করা সিএআইটি বর্জন করার মতো পণ্যের একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে। প্রচারণার অংশ হিসেবে তারা শুধু যে চীনা পণ্য বিক্রিতে অনুৎসাহিত করছে তা নয়, মসলাসহ বিভিন্ন পণ্য বর্জন করতে ভোক্তাদের প্রতিও আহ্বান জানিয়েছে।
এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ভারত সরকারও চীনা পণ্যের বিরুদ্ধে মনোভাব বৃদ্ধির জন্য কাজ করছে। গত বুধবার সরকারি সূত্র জানিয়েছে, টেলিকম বিভাগ রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ভারত সঞ্চার সিগাম লিমিটেডকে নিরাপত্তা সংক্রান্ত কারণে ফোরজিতে উন্নীত করতে চীনা পণ্য ব্যবহার না করার নির্দেশ দেওয়া হবে। চীনা প্রতিষ্ঠান র্কর্তৃক উৎপাদিত সরঞ্জামের প্রতি নির্ভরশীলতা কমানোর জন্যও সরকারের পক্ষ থেকে বেসরকারি কোম্পানিগুলোকে বলা হবে। ভারতে চীনবিরোধী মনোভাব বৃদ্ধি পাওয়ায় মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট নির্মাতা ওপ্পো তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফাইভজি স্মার্টফোন উন্মোচনের সরাসরি সম্প্রচার বাতিল করেছে।
তবে দিল্লির প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত ভারতের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার সদর বাজারে ব্যবসায়ীরা প্রশ্ন তুলছেন, চীনা পণ্য বর্জন হলে সেগুলোর স্থলাভিষিক্ত কী দিয়ে হবে। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগকে গুরুত্ব দিলেও উচ্চ শুল্ক, লাল ফিতার দৌরাত্ম্যের কারণে দেশি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।
বৃহস্পতিবার ভারতে ফোরজি পরিষেবায় চীনা সরঞ্জাম ব্যবহারে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে দিল্লি। ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেডের (বিএসএনএল) ফোরজি পরিষেবার উন্নতিতে কোনো চাইনিজ সরঞ্জাম ব্যবহার করা যাবে না; এমন নির্দেশ দিয়েছে দেশটির টেলিকম মন্ত্রণালয়।



 

Show all comments
  • সাইফুল ১৯ জুন, ২০২০, ৩:০৪ পিএম says : 0
    ভারতীয় সৈন্য মারার কারণে তারা যদি চায়নার পন্য ত্যাগ করে. তবে শত শত নিরপরাধ বাংলাদেশী হত্যার দায়ে আমাদের কি উচিৎ নয় ভারতীয় পন্য বর্জন করা?????
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত-চীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ