Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

সীতাকুন্ডে আউশ রোপণে ব্যস্ত কৃষক

সীতাকন্ডে (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২০, ১২:০২ এএম

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে করোনাকে পেছনে ফেলে চলতি মৌসুমে আউশের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন ১৪ হাজারেরও বেশি কৃষি পরিবার। রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে কষ্টের মাঝেও সোনালী ধানের খুশবোই আবার তাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা জোগায়। কিন্তু এবার সময় মতো বৃষ্টি হলেও দেশ জুড়ে করোনার কারণে আউশের চারা রোপনে কৃষক কিছুটা পিছিয়ে পড়েন বলে কৃষকরা জানিয়েছে।
উপজেলা টেরিয়াইল ব্লকে দায়িত্বে থাকা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পিপাস কান্তি চৌধুরী বলেন, আউশ রোপনের শেষ সময় পর্যন্ত এ ব্লকে প্রায় ২৫০ হেক্টর জমিতে ১১০০ কৃষক আউশের বিভিন্ন জাতের চারা রোপন করা শুরু করেছেন। তাই কোমড়ে গামছা বেঁধে এখন কৃষকরা ক্ষেতে নেমে পড়েছেন। এছাড়া উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে কৃষককে দেয়া প্রদর্শণির জন্য উফশী আউশ জাতের ধানচাষও শুরু হয়েছে। এর উৎপাদন হলে স্থানীয় কৃষকদের মাঝে তা বিনামূল্যে কৃষকরাই বিতরণ করবেন। এতে করে এ জাত আস্তে আস্তে প্রতিটি ইউনিয়নে ছড়িয়ে পড়বে। আর বাড়বে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রাও।
এদিকে ৪নং মুরাদপুর ইউনিয়নের কৃষক মো. আবু তাহের বলেন, চলতি মাসের কয়েকদিন আগে অন্যান্য বছরের মতো আউশ চাষ করছি আমি। প্রথম অবস্থায় জমিতে পানি তেমন ছিল না। বর্তমানে জমিতে প্রচুর পানি জমেছে। তাই আউশ রোপনে তেমন সমস্যা হয়নি এবার।
তবে করোনার কারণে আউশ রোপনে কিছুটা আমরা পিছিয়ে পড়লেও এখন তা কাটিয়ে উঠেছি। যদি কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ হানা না দেয় তাহলে আউশের বাম্পার ফলন হবে বলে আমরা আশাবাদি।
এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার আল মামুন রাসেল বলেন, চলতি মৌসুমে সীতাকুন্ডের প্রত্যন্ত অঞ্চল জুড়ে ১৪ হাজার ২শ’ কৃষক পরিবার ৮ হাজার ১০ হেক্টর জমিতে আউশ চারা রোপন করছেন। তার মধ্যে উফশী জাতের আউশ চাষ হয়েছে ৬,৫২০ হেক্টর ও হাইব্রিড চাষ হয়েছে ১,৪৯০ হেক্টরে। তিনি আরও বলেন, এখন যত বৃষ্টি হবে ততই আউশের চারা রোপন সহজ হবে। প্রাকৃতিক বিপর্যয় না হলে আগের চেয়ে আরও বেশি ধান উৎপাদন সম্ভব হবে। কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে প্রণোদনার আওতায় সীতাকুন্ডে চলতি মৌসুমে ১৫শ’ ক্ষুদ্র ও প্রান্তি্ক কৃষদের মাঝে বিনামূল্যে রাসায়নিক সার ও ধানের বীজ বিতরণ করা হয়েছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কৃষক


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ