Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

জাতিসংঘের সংস্থাগুলোকে ভাসানচর দেখার আমন্ত্রণ

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

মানবিক পরিস্থিতি এবং শরণার্থী জনগোষ্ঠীর যেকোনো তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয়তা নির্ধারণের জন্য ভাসানচর দ্বীপে একটি সুরক্ষা সফর করতে জাতিসংঘের অন্যান্য সংস্থাসহ ইউএনএইচসিআরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থার মতে, এ সফরের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে।
ইউএনএইচসিআর জানায়, ভাসানচরে যেকোনো শরণার্থীদের স্থানান্তর করার আগে পাঁচটি মূল বিষয়ের বিশদ ও স্বতন্ত্র মূল্যায়ন করা উচিত। এগুলো হলো- সুরক্ষা ও স্থায়িত্ব, জাতিসংঘ ও মানবিক কর্মীদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা, নিরাপত্তা, টেকসই জীবিকা ও প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম এবং প্রবেশগম্যতা।
ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, কয়েক সপ্তাহ সমুদ্রে থাকার পরে গত ২ মে প্রায় ৩০ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে উপক‚লে আসে। যাদের মধ্যে অনেক নারী ও শিশু ছিল। উদ্ধারের পরে তাদের ভাসানচরে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ। ১৭ মে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করা ২৭৭ রোহিঙ্গাদের একটি দলকেও এ দ্বীপে পাঠানো হয়েছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১৪ মে প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত করা হয়েছিল এবং মে মাসের শেষে মোট ২৯ জনের এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিস্থিতির ওপর ১ থেকে ৩১ মে পর্যন্ত পরিচালিত হালনাগাদ সমীক্ষায় এ তথ্য পাওয়া গেছে। ইউএনএইচসিআর করোনাভাইরাস আক্রান্ত গুরুতর রোগীদের চিকিৎসায় ২০০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ও চিকিৎসাকেন্দ্র স্থাপন করেছে। যেখানে করোনাভাইরাস ধরা পড়া রোগীরা চিকিৎসা নিচ্ছেন। করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীদের সংস্পর্শে আসাদের আইসোলেশনে রাখার জন্য চারটি পৃথক পৃথক কেন্দ্রও প্রতিষ্ঠা করেছে ইউএনএইচসিআর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন