Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ববিতার ববিতা নামটি যেভাবে হলো

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২০, ১১:২৪ এএম

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতার একমাত্র ছেলে অনিক’র জন্যই মনটা বেশি খারাপ উপমহাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতার আসল নাম ফরিদা আক্তার। ডাক নাম ছিল পপি। তবে সিনেমায় এসে তার নাম হয়ে যায় ববিতা। সাধারণত সিনেমায় যারা আসেন তাদের আসল নাম খুব কমই ব্যবহৃত হয়। ববিতার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছিল। এখন ববিতার ববিতা নামটি কীভাবে হয়েছিল তা তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমার বাবা মা আমার নাম রেখেছিলেন ফরিদা আক্তার পপি। ডাক নাম পপি। আমার প্রথম সিনেমা ছিলো জহির রায়হান পরিচালিত ‘সংসার’। সেই সিনেমাতে আমি মাহমুদ সাজ্জাদের বিপরীতে অভিনয় করি। পরবর্তীতে আমাকে যখন পরিচালক নূরল হক ‘জ¦লতে সুরুজকে নিচে’ সিনেমায় নায়িকা হিসেবে চূড়ান্ত করেন, তখন সেই সময়ের প্রখ্যাত আলোকচিত্রগ্রাহক আফজাল চৌধুরী আমার নাম রাখেন ববিতা। এরপর থেকেই আমি ববিতা নামেই পরিচিত হতে থাকি। এ নামেই আমি দর্শকের কাছে পরিচিত হই। তবে এখন আর পপি নামটি আমাকে সেভাবে টানেনা। কারণ, ববিতা নামটির সাথে অনেক সম্মান, অনেক প্রাপ্তি, অনেক আবেগ, ভালোবাসা জড়িয়ে আছে।’ ববিতা জানান ‘জ¦লতে সুরুজ কে নিচে’ সিনেমাটি সেই সময় মুক্তি পায়নি। অভিনয়ের বেশ কয়েকবছর পর সিনেমাটি মুক্তি পায়। তবে এ সিনেমার পরপরই নায়করাজ রাজ্জাকের বিপরীতে জহির রায়হানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ববিতা নামে ‘শেষ পর্যন্ত’ সিনেমায় অভিনয় করি। সিনেমাটি মুক্তি পায় ১৯৬৯ সালের ১৪ আগস্ট। সিনেমাটি সেই সময় বেশ সাড়া ফেলে। ববিতা নাম নিয়ে নায়িকা হিসেবে আমরা পথ সুগম হয়। আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। এ সিনেমায় পারিশ্রমিক হিসেবে পাওয়া বার হাজার টাকা দিয়ে জীবনের প্রথম গাড়ি কিনি। তবে গাড়িটি মাকে আর দেখাতে পারিনি। তার আগেই মা মৃত্যুবরণ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন