Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

এভারটনে আটকে গেল লিভারপুল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জুন, ২০২০, ১২:০৩ এএম

এভারটনকে হারালেও লিভারপুলের লিগ শিরোপা জয়ের স্বপ্ন পূরণ হতো না। আরও একটি ম্যাচ জিততে হতো। কিন্তু তাই বলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকার ১২তম এভারটনকে হারাতে পারবে না ইয়‚র্গেন ক্লপের দল! গতপরশু রাতের ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র করে পরিস্থিতি কিছুটা জটিলই করে তুলেছে তারা। পরের ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে জিতলেও খুব একটা স্বস্তিতে থাকবে না ইয়ুর্গের ক্লপের দল। ২ জুলাই যে তাদের প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটি। তবে সিটি তাদের পরের ম্যাচে বার্নলিকে হারাতে না পারলে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে জয়ই ৩০ বছর পর লিভারপুলকে এনে দেবে লিগ শিরোপা।
গুডিসন পার্কে দলের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহকে ছাড়াই নেমেছিল লিভারপুল। ফিরমিনো আর সাদিও মানের সঙ্গে ছিলেন তাকুমি মিনামিনো। এই ত্রয়ী তেমন কোনো আশার আলো দেখাতে পারেননি ক্লপকে। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই মিনামিনোর জায়গায় অ্যালেক্স অক্সলেড চেম্বারলেইনকে নামিয়ে ক্লপ চিত্রে কিছুটা বদল এনেছিলেন। তাতে পরের অর্ধে দারুণ শুরু করেছিল লিভারপুলও। তবে এভারটন গোলের যত কাছাকাছি গিয়ে খালি হাতে ফিরেছে, লিভারপুলের আর অতখানি যাওয়া হয়নি।
পয়েন্ট টেবিলের ১৩-তে থেকে ম্যাচ শুরু করা কার্লো আনচেলোত্তির আফসোসটাই বেশি হওয়ার কথা এই ড্রয়ের পর। খেলার শেষ দিকেই এভারটন নষ্ট করেছেন ৩টি সুযোগ। এর মধ্যে টম ডেভিসের শটটি বারে লেগে প্রতিহত হওয়াটা ছিল এভারটনের জন্য সবচেয়ে হতাশার। এরপর লিভারপুল গোলরক্ষক অ্যালিসনে আটকে যান তার দেশেরই রিচার্লিসন। তাইতো নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে এক পয়েন্ট নিয়েই খুশি লিভারপুল কোচ ক্লপ, ‘ম্যাচটা দুর্দান্ত হয়েছে। দুই দলই দারুণ লড়াই করেছে।’ ক্লপ নিজ দলের রক্ষণ ও মধ্যমাঠের প্রশংসাই করেছেন, ‘আমার দলের রক্ষণ ভালো খেলেছে। মিডফিল্ডও প্রেস করে খেলেছে। কিন্তু বল পায়ে রাখার তুলনায় খুব বেশি সুযোগ আমরা সৃষ্টি করতে পারিনি। আমরা প্রভাব বিস্তার করে খেললেও বড় সুযোগটা এসেছিল এভারটনেরই।’
অলরেডরা পয়েন্ট খোয়ালেও ঘুরে দাঁড়িয়ে দারুণ জয় পেয়েছে আরেক জায়ান্ট চেলসি। শুরুতে পিছিয়ে পড়েও অ্যাস্টন ভিলাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা। চেলসির হয়ে গোল দুটি করেন ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচ ও অলিভার জিরুদ। অ্যাস্টনের পক্ষে গোলটি করেন কোর্টনি হাউস।
ভিলা পার্কের ম্যাচে ৪৩তম মিনিটে পিছিয়ে পড়ে চেলসি। হাউসের শট প্রথম প্রচেষ্টায় গোলরক্ষক কেপা আরিসাবালাগা ফেরাতে পাড়লেও ফিরতি বল ফেরানোর সুযোগ ছিল না তার। ৬০তম মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান বদলি নামা পুলিসিচ। সেসার আসপিলিকুয়েতার ক্রস থেকে বল পেয়ে আলতো টোকায় বল জালে জড়ান এ মার্কিন ফরোয়ার্ড। দুই মিনিট পরই এগিয়ে যায় চেলসি। আসপিলিকুয়েতার আরও একটি ক্রস থেকে লক্ষ্যভেদ করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড জিরুদ।
ড্র করলেও ৩০ ম্যাচে ৮৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে এভারটনের সংগ্রহ ৩৬ পয়েন্ট। তালিকার ১২তম স্থানে আসছে তারা। ৩০ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে চেলসি। অবনমন অঞ্চলে থাকা অ্যাস্টনের সংগ্রহ ২৬ পয়েন্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিভারপুল


আরও
আরও পড়ুন