Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

গ্রামীণফোন পারবে না দিতে : বিটিআরসি

অনুমোদন ছাড়া প্যাকেজ অফার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জুন, ২০২০, ১২:০৩ এএম

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (বিটিআরসি) অনুমোদন ছাড়া নতুন কোন সেবা, প্যাকেজ অফার দিতে পারবে না মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন। বর্তমানে অপারেটরটির যেসব প্যাকেজ বা অফার চালু রয়েছে সেগুলো পরিবর্তন করতে চাইলে কিংবা চালু রাখতে চাইলেও বিটিআরসির অনুমোদন নিতে হবে। গ্রামীণফোনের সেবায় অসন্তুষ্ট হয়ে নম্বর ঠিক রেখে কোন গ্রাহকের অন্য অপারেটরে যাওয়ার শর্তও শিথিল করা হয়েছে। আগামী ১ জুলাই থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা।

বিটিআরসি সূত্রে জানা যায়, টেলিযোগাযোগ ব্যবসায় ‘একক আধিপত্য তৈরির অবস্থা’ যাতে তৈরি না হয়, তা নিশ্চিত করতে ২০১৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি গ্রামীণফোনকে সিগনিফিকেন্ট মার্কেট পাওয়ার (এসএমপি) ঘোষণা করে বিটিআরসি। এসএমপি প্রবিধানমালা অনুযায়ি, কোনো মোবাইল অপারেটরের গ্রাহক সংখ্যা, বার্ষিক রাজস্ব বা বরাদ্দ পাওয়া তরঙ্গের পরিমাণ ৪০ শতাংশের বেশি হলে তাকে এসএমপি অপারেটর হিসেবে ঘোষণা করা যাবে। এসএমপি অপারেটর হিসেবে গ্রামীণফোনকে ঘোষণার পর গতবছর ১৮ ফেব্রæয়ারি তাদের ওপর কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। কিন্তু অপারেটরটি আদালতে যাওয়ায় সেটি পিছিয়ে যায়। চলতি বছরের মে মাসে গ্রাহকদের বিনামূল্যে ১০ কোটি মিনিট দেয় গ্রামীণফোন। এছাড়া চিকিৎসকদের জন্য ১ টাকায় এক জিবি ইন্টারনেট প্যাকেজ ঘোষণা দেয়। এতে আপত্তি জানায় অন্য অপারেটরগুলো। এসএমপি অপারেটর হিসেবে গ্রামীণফোন এটি করতে পারেনা বলেও জানানো হয়। এরপরই নতুন করে অপারেটরটির ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করলো বিটিআরসি।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর বদলের ক্ষেত্রে গ্রামীণফোনের বেলায় সময়সীমা হবে ৬০ দিন। যেখানে অন্য অপারেটরদের ক্ষেত্রে তা ৯০ দিন। এই নির্দেশনাও ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে। ফলে ১ জুলাইয়ের পরে গ্রামীণফোন ছেড়ে অন্য অপারেটরে যেতে চাইলে ৬০ দিন পরই যেতে পারবেন। এখন যেটি ৯০ দিন।
বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেন, টেলিযোগাযোগ ব্যবসায় একক আধিপত্য যাতে তৈরি না হয়, তা নিশ্চিত করতেই এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এর ফলে কোনো অপারেটরের কোনো ক্ষতি হবে না। প্রতিযোগিতামূলক বাজার তৈরি করতেই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গ্রামীণফোন চাইলে এই সিদ্ধান্ত রিভিউ করার জন্য ৬ মাস পর আবেদন করতে পারবে। এসএমপির নিয়ম অনুযায়ী এখন থেকে যেকোন প্যাকেজ ঘোষণার আগে অনুমোদন নেবে। ৫ কার্যদিবসের মধ্যে যদি অনুমোদন না দেয়া হয় ধরে নিতে হবে তা অনুমোদন পায়নি।
গ্রামীণফোনের পরিচালক ও হেড অব পাবলিক অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স হোসেন সাদাত বলেন, আরোপিত বিধিনিষেধগুলো এসএমপির মূল উদ্দেশ্যের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয়, বাজার বিনষ্ট হয়েছে এমন কোনো প্রমাণের ভিত্তিতেও সেগুলো আরোপ করা হয়নি। অসামঞ্জস্যপূর্ণ এই বিধিনিষেধগুলোই প্রতিযোগিতার পরিবেশবিরোধী, যা গ্রাহক স্বার্থের পরিপন্থী বলেও আমাদের বিশ্বাস।



 

Show all comments
  • খায়রুল ইসলাম ২৪ জুন, ২০২০, ৫:৩৪ পিএম says : 0
    ১৩-০৬-২০২০, রাত ১২:৪৯am,আমি বিকাশ থেকে ৪০০/=টাকা রিচাজ করি,আমার গ্রামীণফোন নাম্বারে তার পর ৩৬৪ টাকা দিয়ে ২৫ জিবি ইন্টারনেট কিনি ৩০ দিনের জন্ন্য,GP এত সার্ভিস,যা নাকি আমি আজ ২৪-০৬-২০২০ইং পর্যন্ত দুই জিবি use করতে পারি নাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Nuruddin Jahed ২৪ জুন, ২০২০, ১১:৫৪ পিএম says : 0
    Banglalink Network সমস্যা রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলায়, কতবার অভিযোগ করেও তাদের সমস্যার সমাধান করা হয়নি ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিটিআরসি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ