Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

দুবাই-মালদ্বীপ থেকে ফিরছে আরো চার শতাধিক কর্মী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে চাকরি হারিয়ে বিদেশ থেকে প্রবাসী কর্মীর দেশে ফেরা অব্যাহত রয়েছে। প্রবাসী কর্মীদের ফেরত না পাঠাতে ক‚টনৈতিক পর্যায়ে অনুরোধ জানিয়েও কোনো কাজ হচ্ছে না। গত সোমবার রাতে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে একটি বিশেষ ফ্লাইটে আরো ২০০ বাংলাদেশি প্রবাসী কর্মী চাকরি হারিয়ে খালি হাতে দেশে ফিরেছে।
হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরস্থ কল্যাণ ডেস্কের এডি ফখরুল আলম গতকাল এ বিষয়টি জানান। গতকাল মালদ্বীপ থেকে একটি বিশেষ ফ্লাইটে আরো দু’শতাধিক প্রবাসী কর্মী দেশে ফেরার কথা। দেশটিতে বিপুল সংখ্যক ঘরবন্দি প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে রয়েছে। এসব প্রবাসীদের ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশকে চাপ দিচ্ছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিভিন্ন কোম্পানিতে কাজ না থাকায় আরো বিপুল সংখ্যক প্রবাসী কর্মী দেশে ফেরার ঝুঁকিতে রয়েছে। একাধিক প্রত্যাগত কর্মী এসব তথ্য জানিয়েছে। এছাড়া, গত রোববার আবুধাবী থেকে একটি ফ্লাইটে ৪১২ জন প্রবাসী কর্মী চাকরি হারিয়ে খালি হাতে দেশে ফিরছে। এদিকে, গত রাতে স্পেন থেকে একটি বিশেষ ফ্লাইটে তিন জন প্রবাসী কর্মীর লাশ দেশে পৌঁছেছে। এসব লাশ পরিবহন ও দাফন কাফনের জন্য ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ৩৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।

এদিকে, গত সোমবার রামরু’র উদ্যোগে ফেরত আসা প্রবাসী কর্মীদের বকেয়া পাওনা আদায় এবং তাদের সুরক্ষা নিশ্চিতকরণ সংক্রান্ত শীর্ষক এক জুমসভায় জানানো হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে চাকরি হারিয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ১৬ হাজার অভিবাসী কর্মী দেশে ফিরেছে। সভায় প্রত্যাগত এসব অভিবাসী কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে জোর দাবি জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, প্রত্যাগত কর্মীরা বিদেশে পাওনা গড়ে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা করে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। বিদেশে তাদের বকেয়া পাওনা উদ্ধারের কার্যকরী উদ্যোগ নিতে হবে। সরকার প্রত্যাগত কর্মীদের পুনর্বাসনে ৭শ’ কোটি টাকা ঋণ বরাদ্দ দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। এতে গত তিন মাসে ফিরে আসা ৫০ জন অসহায় অভিবাসীর ওপর রামরু একটি গবেষণার প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুবাই-মালদ্বীপ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ