Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সিলেটে পাগলা ঘোড়ার মতো ছুটছে করোনা

লকডাউন নিয়ে ধ্রুমজাল, আক্রান্ত তিন হাজার ৬৩১

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২০, ৩:৫১ পিএম

সিলেট বিভাগে পাগলা ঘোড়ার মতো ছুটছে করোনা। লাগামহীন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে এখন সাড়ে তিন হাজার। কোনভাবে নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছেনা সিলেটে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লকডাউন দেয়ার জন্য জোরদাবি জানাচ্ছেন দেশ বেদেশে থাকা সিলেটের মানুষজন। সিলেটে লকডাউন নিয়ে তৈরী হয়েছে ধ্রুমজাল। করোনার টেস্ট নিয়েও রয়েছে নানা অভিযোগ। 

এর মধ্যে শুধু সিলেট জেলায় আক্রান্ত প্রায় দুই হাজার। গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগে আরও ২০৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তবে নতুন শনাক্ত হয়েছেন ১৮৭ জন। বাকিদের ফলোআপ পরীক্ষায় পজেটিভ আসে। ইতিমধ্যে সংক্রমণ ঠেকাতে হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার রেড জোন গুলোতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।
গত ৫ এপ্রিল প্রথম রোগী শনাক্ত হওয়ার পর আজ পর্যন্ত বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা তিন হাজার ৬৩১ । এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬০ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ২৭০ জন। আর ইতিমধ্যে করোনা জয় করে সুস্থ হয়েছেন ৮১৪ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সিলেট বিভাগে বুধবার (২৪ জুন) সকাল পর্যন্ত ৩৬৩১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ১৯৪৪ জন, সুনামগঞ্জে ৮৬৮ জন, হবিগঞ্জে ৪৬৪ জন ও মৌলভীবাজারে ৩৫৫ জন।
সিলেট বিভাগে বর্তমানে করোনা আক্রান্ত ২৭০ জন রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে ৯১ জন সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে, সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতালে ১১৫ জন, হবিগঞ্জের হাসপাতালে ৫৭ জন ও মৌলভীবাজারে ৭ জন।
সিলেট বিভাগে বুধবার সকাল পর্যন্ত ৮১৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেটে ২৭১ জন, সুনামগঞ্জে ২৩০ জন, হবিগঞ্জে ১৮২ জন ও মৌলভীবাজারে ১৩১ জন। গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ২৭ জন।
জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সিলেট বিভাগে ৬০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ৪৬ জন, মৌলভীবাজারে চারজন, সুনামগঞ্জে পাঁচজন ও হবিগঞ্জে পাঁচজন।
এবিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আনিসুর রহমান বলেন, 'গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকার ল্যাব, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাব এবং সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে নতুন করে সিলেট বিভাগের আরও ১৮৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।'িসিল
সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে তিন হাজার। এর মধ্যে শুধু সিলেট জেলায় আক্রান্ত প্রায় দুই হাজার। গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগে আরও ২০৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তবে নতুন শনাক্ত হয়েছেন ১৮৭ জন। বাকিদের ফলোআপ পরীক্ষায় পজেটিভ আসে। ইতিমধ্যে সংক্রমণ ঠেকাতে হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার রেড জোন গুলোতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।
গত ৫ এপ্রিল প্রথম রোগী শনাক্ত হওয়ার পর আজ পর্যন্ত বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা তিন হাজার ৬৩১ । এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬০ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ২৭০ জন। আর ইতিমধ্যে করোনা জয় করে সুস্থ হয়েছেন ৮১৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সিলেট বিভাগে বুধবার (২৪ জুন) সকাল পর্যন্ত ৩৬৩১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ১৯৪৪ জন, সুনামগঞ্জে ৮৬৮ জন, হবিগঞ্জে ৪৬৪ জন ও মৌলভীবাজারে ৩৫৫ জন।
সিলেট বিভাগে বর্তমানে করোনা আক্রান্ত ২৭০ জন রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে ৯১ জন সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে, সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতালে ১১৫ জন, হবিগঞ্জের হাসপাতালে ৫৭ জন ও মৌলভীবাজারে ৭ জন।
সিলেট বিভাগে বুধবার সকাল পর্যন্ত ৮১৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেটে ২৭১ জন, সুনামগঞ্জে ২৩০ জন, হবিগঞ্জে ১৮২ জন ও মৌলভীবাজারে ১৩১ জন। গত ২৪ ঘন্টায় বিভাগে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ২৭ জন।
জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সিলেট বিভাগে ৬০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ৪৬ জন, মৌলভীবাজারে চারজন, সুনামগঞ্জে পাঁচজন ও হবিগঞ্জে পাঁচজন।
এবিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আনিসুর রহমান বলেন, 'গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকার ল্যাব, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাব এবং সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে নতুন করে সিলেট বিভাগের আরও ১৮৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ