Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ইসরাইলের পদক্ষেপ দ্বিরাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের পথ রুদ্ধ করে দেবে

ইউরোপের ২৫টি দেশের এক হাজার আইনপ্রণেতার নিন্দা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

আবারো ইউরোপকে পাশে পেয়েছে ফিলিস্তিন। দখলকৃত পশ্চিম তীরে ইসরাইলি বসতি স্থাপনের যে পরিকল্পনা দেশটির সরকার হাতে নিয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন ইউরোপের আইন প্রণেতারা। ইউরোপের ২৫টি দেশের কমপক্ষে এক হাজার আইনপ্রণেতা এ নিন্দা জানিয়েছেন। তাদের দাবি, ইসরাইলের এমন পদক্ষেপ এ অঞ্চলে দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের পথ রুদ্ধ করে দেবে। একইসঙ্গে নতুন করে অঞ্চলটিকে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির সুযোগ সৃষ্টি করা হবে বলেও জানান তারা। আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ইউরোপীয় আইন প্রণেতারা ইসরাইলের প্রতি শান্তির লক্ষ্যে কাজের আহŸান জানিয়েছেন। তারা মনে করেন, যে কোনো উপায়েই হোক দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের পথ খোলা রাখতে হবে। এর আগে নতুন করে পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছিল ইসরাইল। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু তখন বলেন, আগামী ১লা জুলাই থেকে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন শুরু হবে। একে সমর্থন দিয়েছে মিত্র রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্রও। ঐতিহাসিকভাবে ফিলিস্তিনকে সমর্থন দিয়ে আসছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এবারো জোটটির অন্তর্ভুক্ত রাষ্ট্রগুলো আলাদা আলাদাভাবে ইসরাইলের এমন সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে। তবে এবার একইসঙ্গে সহস্রাধিক আইনপ্রনেতারা ফিলিস্তিনের দাবির পক্ষে মত দিলেন। ইতিমধ্যে ট্রাম্পের ডিল অব দ্যা সেঞ্চুরি পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছে ফিলিস্তিনিরা। নতুন করে ইসরাইলের এমন প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে প্রতিবাদও হচ্ছে গাজায়। গত ২৩ জুন ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভে কয়েকটি দেশের বিদেশি ক‚টনীতিকরাও যোগ দেন। মঙ্গলবার প্রকাশ পাওয়া ইউরোপীয় আইন প্রণেতাদের এক চিঠিতে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে এসে জোর করে জায়গা দখলের কোনো সুযোগ নেই। ইসরাইল এ কাজ করলে তার পরিণতি ভোগ করতে হবে। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ইউরোপীয় নেতাদের আরো বড় ভ’মিকা রাখার আহŸান জানান আইনপ্রনেতারা। এতে আরো বলা হয়, ইউরোপের আইনপ্রণেতারা বিশ্বজুড়ে গণতান্ত্রিক উপায়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। এতে ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের পরিকল্পনা নিয়েও উদ্বেগ জানানো হয়। আল-জাজিরা।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসরাইল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ