Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ফ্রান্সে নিরাপত্তা জোরদারের আহ্বান ধর্মীয় নেতাদের

প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ফ্রান্সে নরম্যান্ডির একটি চার্চে জঙ্গি হামলায় এক যাজকের প্রাণহানির পর দেশের উপাসনালয়গুলোতে নিরাপত্তা আরও বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন বিভিন্ন ধর্মের নেতৃবৃন্দ। প্রেসিডেন্ট ওঁলান্দ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়ে দেশে ঐক্যের ডাক দেন। তিনি বলেন, আমাদের গণতন্ত্র হামলার লক্ষ্য হয়েছে। আর এ গণতন্ত্রই আমাদের সুরক্ষা দেবে। আসুন আমরা একতাবদ্ধ হই। আমরা এ যুদ্ধে জয়ী হব। ফরাসি কর্তৃপক্ষ দুই হামলাকারীর মধ্যে একজনের নাম প্রকাশ করেছে। ১৯ বছর বয়সী আদেল কিরমিচ আইএস-র হয়ে যুদ্ধ করতে দুইবার সিরিয়ায় যাওয়ার চেষ্টা করে। গত বুধবার ফ্রান্সের খ্রিস্টান, মুসলিম, ইহুদি ও বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতারা প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলান্দের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ আহ্বান জানান। বৈঠকে ওঁলান্দ সব ধর্মের নেতাদের সঙ্গেই সংহতি প্রকাশ করেন। ফ্রান্সের নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা পরিষদের সঙ্গেও বৈঠক করেন তিনি। গত মঙ্গলবার মর্নিং ম্যাস চলার সময় ছুরি হাতে দুই ব্যক্তি নরম্যান্ডির সেন্ট-এতিয়েন-দ্যু-হুভে শহরের চার্চে ঢুকে পড়ে এবং বয়োজ্যেষ্ঠ এক যাজককে গলা কেটে হত্যা করে ও অন্য একজনকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত করে। পুলিশের গুলিতে দুই হামলাকারী নিহত হয়। নিহত ফাদার জ্যাক এমেলের বয়স ছিল ৮৪ বছর। মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চার্চে হামলাকারী দুই ব্যক্তির মধ্যে একজনের শরীরে ইলেক্ট্রনিক নজরদারি ট্যাগ ছিল। কিন্তু প্রবেশন শর্তের অধীনে সাময়িকভাবে তা বন্ধ ছিল। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের গ্রান্ড মসজিদের প্রধান মুসলিম নেতা বলেন, ধর্মীয় নেতাদের আন্তরিক কামনা, আমাদের ধর্মীয় স্থানগুলোর জন্য যেন কঠোর ও টেকসই নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কারণ, উপাসনালয়ের সবচেয়ে পবিত্র স্থানও হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হতে পারে। মঙ্গলবারের হামলার পর তিনি ফ্রান্সের মুসলিম সমাজের পক্ষ থেকে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন। প্যারিসের আর্চবিশপ আঁদ্রে ভেন-তোহা ফ্রান্সে সব ধর্মের মানুষদের মধ্যে সুসম্পর্কের প্রশংসা করে বলেন, আমরা অবশ্যই নিজেদেরকে রাজনৈতিক খেলার বলি হতে দেব না। তারা একই পরিবারের সন্তানদের পরস্পরের বিরুদ্ধে সংঘর্ষে লিপ্ত করতে চায়। ফ্রান্সের ল্যু মুঁদ পত্রিকার খবর অনুযায়ী, দেশটির প্রসিকিউটর কার্যালয় কিরমিচকে আটক রাখতে চেয়েছিল। কিন্তু একজন বিচারক প্রসিকিউটর কার্যালয়ের ওই আবেদন বাতিল করে দিয়ে তাকে গৃহবন্দী রাখার নির্দেশ দেন। বিবিসি, এএফপি, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ