Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

রংপুরে আউশ আবাদে রেকর্ড

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

দেশের উত্তরাঞ্চলে (রংপুরের ৫ জেলা) বিগত ২০ বছরের মধ্যে এবার সবচেয়ে বেশি পরিমাণ জমিতে আউশ আবাদ হয়েছে। 

চলতি ২০২০-২১ মৌসুমে আবাদ হয়েছে রেকর্ড পরিমাণ ৬৩ হাজার ৬৯০ হেক্টর জমি। যা লক্ষ্যমাত্রা ৫৯ হাজার ৬৭৫ হেক্টরের চেয়ে চার হাজার ১৫ হেক্টর (৭ শতাংশ) বেশি। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের বরাত দিয়ে গতকাল কৃষি মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
ভূগর্ভস্থ পানির অপচয় রোধ করে বৃষ্টির পানি কাজে লাগিয়ে আউশ আবাদকে জনপ্রিয়করণ করায় রংপুর, নীলফামারী, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধায় আউশ আবাদ ক্রমাগত বাড়ছে।
কৃষি মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০০০-০১ মৌসুমে এ অঞ্চলে আউশ আবাদ হয়েছিল ২৫ হাজার ৭৩৪ হেক্টর জমিতে, এর পরবর্তী বছরগুলোতে ক্রমাগত আউশ আবাদের এলাকা কমতে থাকে। ২০০৯-১০ মৌসুমে সর্বনিম্ন ১২ হাজার ৯৩৮ হেক্টর জমিতে আউশ আবাদ হয়। ২০০৯-১০ সালের আউশ আবাদের তুলনায় এবার আবাদ হয়েছে পাঁচগুণ বেশি।

আউশের গড় ফলনও বেড়েছে জানিয়ে কৃষি মন্ত্রণালয় জানায়, ২০১৭-১৮ মৌসুমে হেক্টরপ্রতি চাল উৎপাদন হয়েছিল ২ দশমিক ৯৮ টন; গত ২০১৮-১৯ মৌসুমে তা বেড়ে হয়েছে ৩ দশমিক ০৪ টন। এ বছর রংপুর অঞ্চলের পাঁচ জেলায় এক লাখ ৯৫ হাজার ৫২৮ টন চাল চলতি আউশ
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মোহাম্মদ আলী জানান, এ অঞ্চলে জমির প্রায় অর্ধেক ‘বোরো-পতিত-রোপা আমন’ শস্য বিন্যাসের আওতায় রয়েছে।

এই শস্য বিন্যাসের মধ্যে আউশ উপযোগী জমিকে আউশভিত্তিক তিন ফসলী জমিতে নিয়ে আসার পরিকল্পনার বাস্তবায়ন চলছে মাঠপর্যায়ে। এর ফলে আউশের আবাদ বৃদ্ধির সাথে সাথে এ অঞ্চলে শস্যের নিবিড়তা বাড়ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আউশ-আবাদ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ