Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

পঞ্চগড়ে পানিডে ডুবে এক মাসে ৯ শিশুর মৃত্যু

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০২০, ৭:২০ পিএম

অভিভাবকদের অসচেতনতায় পঞ্চগড়ে বর্ষার শুরুতেই গত এক মাসে পুকুর, নদী, নালা ও বালতির পানিতে ডুবে মারা গেছে ৯ শিশু। এদের মধ্যে তেঁতুলিয়া উপজেলায় ৪ জন, সদর উপজেলায় ৪ জন ও আটোয়ারী উপজেলায় ১ জন।
গত ২৯ মে তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের মাঝগ্রাম এলাকার ফরহাদ হোসেনের ছেলে মুছাব্বির হোসেন (৩) বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে ডুবে মারা যায়। চলতি মাসের ১০ জুন শালবাহান ইউনিয়নের শহিদুল ইসলামের ছেলে আরিফ খেলার সময় পুকুরের পানিতে পড়ে মারা যায়। একই দিন আটোয়ারী উপজেলার তোড়িয়া ইউনিয়নের দুলাল হোসেনের ৩ বছরের ছেলে সিয়াম হোসেন হাঁসের বাচ্চার সাথে খেলতে গিয়ে নালার পানিতে ডুবে মারা যায়। ১৩ জুন সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের ভান্ডারুগ্রাম এলাকার মো. মকছেদ আলীর প্রতিবন্ধী মেয়ে তাবাসসুম জাহান মিম (৭) নালার পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করে। ১৫ জুন সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের নুনিয়া পাড়া গ্রামে সুবল চন্দ্র রায়ের ৫ বছরের ছেলে তুষার চন্দ্র রায় বাড়ির পাশে খেলার সময় নালার পানিতে ডুবে মারা যায়। ১৭ জুন সদর উপজেলার ধাক্কামারা ইউনিয়নের মিঠাপুকুর এলাকার নবীর হোসেনের ৯ মাসের কন্যা নুরী আক্তার বালতির পানিতে পড়ে মারা যায়। শিশুটির মা শিশু নুরীকে প্লাস্টিকের চেয়ারে বসিয়ে দিয়ে বাড়ির বাইরে গেলে চেয়ারের পাশে থাকা বালতির পানিতে পড়ে যায় শিশু নুরী। ১৮ জুন সদর উপজেলার সদর ইউনিয়নের মাহান পাড়া এলাকার সাহিরুল ইসলামের আড়াই বছরের ছেলে আরাফাত ইসলাম রাফি খেলার সময় পুকুরের পানিতে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। ১৯ জুন তেঁতুলিয়া সদর ইউনিয়নের বিড়ালজোত এলাকার দুলাল হোসেনের আড়াই বছরের মেয়ে লামিয়া আক্তারের পুকুরের পানিতে ডুবে মারা যায়। ২৪ জুন তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের সালাফী গছ এলাকার মোক্তরুল ইসলামের ৩ বছরের শিশু রাজিয়া খাতুনের পুকুরের পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ