Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সিরাজদিখানে ২ হাউজিং প্রকল্পের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, এএসআইসহ ৩ পুলিশ আহত

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০২০, ৫:৫৩ পিএম

সাইনবোর্ড লাগানো কেন্দ্র করে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার চান্দেরচর খাসকান্দি গ্রামে গতকাল রোববার দু’টি হাউজিং প্রকল্পের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। বেলা ১১ টার দিকে সুমনা হাউজিং প্রকল্প ও দখিনা গ্রীন সিটি হাউজিং প্রকল্পের লোকজনের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে গেলে উভয় হাউজিং প্রকল্পের লোকজনের ইটপাটকেল নিক্ষেপে এএসআইসহ ৩ পুলিশ আহত হয়েছে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ১৫ রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি বর্ষন করে পুলিশ। পরে গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১ হাজার ৫০০ টেঁটা উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় সিরাজদিখান থানার এএসআই দিলীপ কুমার (৪৮), কনষ্টেবল মমিনুল ইসলাম (৩০) ও সাইফুল ইসলামকে (২৮) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।
সিরাজদিখান থানার ওসি মো. ফরিদউদ্দিন জানান, শনিবার দিনগত রাতে উপজেলার চান্দেরচর খাসকান্দি গ্রামে সুমনা হাউজিং প্রকল্পের সাইনবোর্ড ফেলে দেয় দখিনা গ্রীন সিটি হাউজিং প্রকল্পের লোকজন। এ নিয়ে ওই রাত থেকেই উত্তেজনা দেখা দেয়। এ অবস্থায় ২৮ জুন বেলা ১১ টার দিকে ফেলে দেওয়া সাইনবোর্ড লাগাতে গেলে সুমনা হাউজিং প্রকল্পের লোকজনের উপর ইটপাটেকল ছুড়ে দখিনা গ্রীন সিটি হাউজিং প্রকল্পের লোকজন। এতে উভয় পক্ষের লোকজন ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম সেখানে ছুটে যায়। এ সময় উভয় পক্ষের লোকজন পুলিশ লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়লে ৩ পুলিশ আহত হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সেখানে ১৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে। এতে উভয় হাউজিং প্রকল্পের লোকজন ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়ে। পরিস্থিতি শান্ত হলে পুলিশ ওই গ্রামের উভয় হাউজিং প্রকল্পের পক্ষের লোকজনের বাড়িতে বাড়িতে অভিযান চালায়। বিকেল ৪ টা পর্যন্ত বিভিন্ন বাড়ি থেকে ১ হাজার ৫০০ টেঁটা উদ্ধার ও ৫ জনকে আটক করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষে আহত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ