Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

ভুয়া সনদ নিয়ে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার

ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

রাজধানীর মতিঝিলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের অনুমোদনহীন অপারেশন থিয়েটারে ব্যবহৃত ইনজেকশন ও সার্জিক্যাল পণ্য রাখার দায়ে ফার্মেসিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও ইউনানীর সনদ নিয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের মতো অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা দেয়ার দায়ে ভুয়া ডাক্তার মিজানুর রহমানকে দুই বছরের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সময় হাসপাতালের বিভিন্ন অনিয়মের কারণে সহকারী সুপার হাসিনুর রফমানকে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

গতকাল দুপুরে মতিঝিল ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাব-৩ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বসু। তিনি জানান, মিজানুর রহমান ইউনানী প্র্যাক্টিশনার বা হেকিম। কিন্তু তার কাছে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ, পিএইচডিসহ নানা সার্টিফিকেট আছে। তার পিএইচডি ডিগ্রি নিয়ে সন্দেহ আছে। তিনি ইউনানী পড়ে এলোপ্যাথিক মেডিসিনে প্রেসক্রাইব করতেন। কিন্তু তিনি এলোপ্যাথিকে চিকিৎসা এবং ডাক্তার পরিচয় দিতে পারেন না। যেহেতু তিনি ইউনানী সনদধারী সেহেতু তিনি হেকিম পরিচয় দিতে পারেন। এছাড়া তিনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতো রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষা করাতেন। এজন্য তাকে দুই বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়।
তিনি আরো জানান, এক পর্যায়ে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের ফার্মেসিতে অভিযান চালানো হয়। সেখানে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের অনুমোদনহীন অপারেশন থিয়েটারে ব্যবহৃত ইনজেকশন ও সার্জিক্যাল পণ্য পাওয়ায় ফার্মেসির শফিউল ইসলাম ও আব্দুল জলিলকে পাঁচ লাখ টাকা করে মোট ১০ লাখ টাকা জরিমানা; অনাদায়ে তিন মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়।



 

Show all comments
  • Md. Zakir Hossain ২৯ জুন, ২০২০, ৯:৪৫ এএম says : 0
    ডাঃ মিজানুর রহমান বাংলাদেশ ইউনানী এন্ড আয়ুর্বেদী মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল থেকে ব্যাচেলর অব মেডিসিন এন্ড সার্জারী ডিগ্রী অর্জন করেছেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হার্ড ও লিভার রোগের উপর পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন।হাইকোর্ট এর রিটের মাধ্যমে এনারা অ্যালোপ্যাথিক মেডিসিন প্রেসক্রিপশন করার অনুমোদন স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় থেকে আদায় করেছেন। তাহলে ভূয়া হলেন কি ভাবে। আমি নিজে ওনার পেসেন্ট হিসেবে ওনার ট্রিটমেন্টে উপকার পেয়েছি। এখানে আর একটি জলজ্যান্ত মিথ্যা তথ্য দেয়া হয়েছে উনি সার্জারী করেন। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ