Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

করোনা মোকাবেলায় বর্হিবিশ্বে প্রশংসিত শেখ হাসিনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২০, ১০:১৭ এএম | আপডেট : ১২:৫৬ পিএম, ২৯ জুন, ২০২০

বাংলাদেশে মহামারী করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা নিয়ে বর্হিবিশ্বে প্রশংসিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকরোনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩ শতাংশ। যা অন্যান্য দেশের তুলানায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার অনেক কম। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে শুরু থেকেই গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে দরিদ্র মানুষকে ত্রাণ সহযোগিতার পাশাপাশি জীবিকা ও অর্থনীতি বাঁচাতে নিয়েছেন নানান পদক্ষেপ।

করোনা সংকট মোকাবিলায় দ্রুত বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ায় দেশের বাইরে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও প্রশংসিত হচ্ছেন শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ফোর্বস ম্যাগাজিনসহ আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করা হয়েছে।

২৪ এপ্রিল এক আর্টিকেলে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস। একইসঙ্গে প্রশংসা করা হয়েছে তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বেরও।

শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে ১৬১ (১৬ কোটির বেশি) মিলিয়ন মানুষের বাস। দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দক্ষতার সঙ্গে সংকট মোকাবিলা করা তার জন্য নতুন কিছু নয়। এরই ধারাবাহিকতায় করোনা মোকাবিলায়ও তিনি নিয়েছেন দ্রুত পদক্ষেপ। যার প্রশংসা করেছে ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামও।

এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের আয়োজিত ‘এনহ্যান্সিং রিজিওন্যাল কো-অপারেশন ইন সাউথ এশিয়া টু কমব্যাট কোভিড-১৯ রিলেটেড ইমপ্যাক্ট অন ইটস ইকোনোমিকস’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল সম্মেলনে গণভবন থেকে যোগ দেন শেখ হাসিনা। এ সম্মেলনে বিশ্বকে এক হয়ে করোনা মোকাবিলা করার আহ্বান জানান তিনি।

১৫ মার্চ গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে কোভিড-১৯ ঠেকানোর লড়াইয়ে সমন্বিত উদ্যোগ নিতে সার্ক নেতাদের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা

২৫ মে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সহায়তা প্রদান বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। শি জিনপিংয়ের প্রস্তাব অনুযায়ী পরে চীন বিশেষজ্ঞ দল বাংলাদেশে আসে।

৪ জুন ভার্চ্যুয়াল প্ল্যাটফর্মে গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (গাভি) আয়োজিত ভ্যাকসিন সামিটে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি দ্রুত ভ্যাকসিন আবিষ্কারের আহ্বান জানান এবং সংস্থাটির তহবিল বাড়াতে অনুদান দিতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান। এসব অনুষ্ঠানে প্রশংসিত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

করোনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩ শতাংশ। যেখানে রোববার পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বশেষ হালনাগাদ তথ্য অনুযায়ী বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বেলজিয়ামে মৃত্যুর হার ১৫.৯ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে ১৪ শতাংশ, স্পেন ১১.৪ শতাংশ, ইতালি ১৪.৫ শতাংশ, সুইডেন ৮.১ শতাংশ, ফ্রান্স ১৪.৯ শতাংশ, যুক্তরাষ্ট্রে ৫ শতাংশ, নেদারল্যান্ডস ১২.২ শতাংশ, ব্রাজিল ৪.৩ শতাংশ, কানাডায় ৮.২ শতাংশ, সুইজারল্যান্ডস এ ৬.২ শতাংশ, মেক্সিকোতে ১২.৪ শতাংশ, ইরান ৪.৭ শতাংশ, জার্মানী ৪.৬ শতাংশ, মিশরে ৪.২ শতাংশ, পাকিস্তান ২ শতাংশ, আফগানিস্তান ২.৩ শতাংশ, ভারতে ৩ শতাংশ, বাংলাদেশে ১.৩ শতাংশ, জাপানে ৫.৩ শতাংশ, অস্ট্রেলিয়ায় ১.৪ শতাংশ এবং চীনে মৃত্যুর হার ৫.৫ শতাংশ।



 

Show all comments
  • Jack Ali ২৯ জুন, ২০২০, ১১:২৪ এএম says : 1
    There are lots of people inclusing health worker i:e. doctors and and also general people without any treatment. They are going hospital to hospital but hospital refuse to take the patient.
    Total Reply(0) Reply
  • Nadim ahmed ২৯ জুন, ২০২০, ৫:৪৪ পিএম says : 0
    This is absolutely bullsheet, dalali. Everything is lie and far from truth. People of Bangladesh know what's going on, how many people died with symptoms of Corona and how many died with breathing problem so far, and these deaths are not included in the countings of Governments data. PM herself will be ashamed if she sees this report.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শেখ হাসিনা

২৬ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ